প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অধরা স্বপ্নগুলোকে ধরতে চান অধরা

মহিব আল হাসান: স্বপ্নের আলিঙ্গনে মানুষের জীবন। যে স্বপ্ন দেখতে জানে সে তার বাস্তবতার সাথে খাপ খেয়ে চলতেও পারে। যেন তার কাছে জীবন শুণ্যের মাঝে অসীম সম্ভাবনায় তীর্বভাবে বেঁচে থাকার আকুতি জানায়। সেই আকুতি তার মাঝে আজন্ম হেরে না যাওয়ার চ্যালেঞ্জ তৈরি করে দেয়। প্রসারিত হয় তার আগামীর সম্ভাবনার। এতকিছুর পর তার ধৈর্যের কমতি হয়নি। সবকিছু পিছনে ছাপিয়ে অন্তিম গতিতে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বলছি ঢাকাই ছবির নতুন মুখ নবাগত নায়িকা অধরা খানের কথা।

উপরের কথাগুলো বলার কারণ হচ্ছে, ঢাকাই ছবিতে অধরা খানের সিনেমা আরও আগে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। তার গায়ে এই সময়ে তকমা থাকত নায়িকা কিন্তু তা হয়নি। অধরা প্রথম ছবিতে অভিনয় করেন শাহীন সুমন পরিচালিত ‘পাগলের মতো ভালোবাসি’ সিনেমায় গত দুবছর আগে। কিন্তু সে ছবিটাও মুক্তি পায়নি এখন পর্যন্ত। ধৈর্য নিয়ে শুরু করেন একই প্রযোজকের ‘মাতাল’ সিনেমার কাজ। ছবিটা গত ঈদুল আযহায় মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও তা পায়নি। সেভাবে প্রচার-প্রচারণাও চালিয়েছিলেন তিনি। পরে ছবিটি আর মুক্তি পায়নি এরই মাঝে তার তৃতীয় ছবি ইস্পাহানি আরিফ জাহান পরিচালিত সিনেমা ‘নায়ক’ এর কাজ শেষ করেন। অধরার ‘মাতাল’ ও ‘নায়ক’ ১২ অক্টোবর মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও আইনি জটিলতায় মুক্তি পিছিয়ে যায়। তবে এতকিছুর পর এ নায়িকা বড় পর্দায় অভিষেক হ্েচ্ছন আগামী ১৯ অক্টোবর।

‘নায়ক’ সিনেমাতে বাপ্পীর সাথে জুটি বেঁধে বড় পর্দায় আসছেন অধরা। দেশের প্রায় ৮১টি হলে মুক্তি পেতে যাচ্ছে বাপ্পী-অধরা জুটির নায়ক ছবিটি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন যুগল নির্মাতা ইস্পাহানি আরিফ জাহান।

ধৈর্য থাকার বিষয়টি নিয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী অধরা। নবাগত থেকে নায়িকা হতে চলা অধরা খান আমাদের সময় ডট কমকে জানান,‘ জীবনে অনেক কিছু আসে যায়। কিছু আসে ক্ষণিকের জন্য আবার কিছু আসে দীর্ঘ সময়ের জন্য। আর আমি জানি ধৈর্য একমাত্র বস্তু যার ফল অনেক ভালো হয়। যেমন আমার সময়ে অনেকে চলচ্চিত্র এসেছে তারা আবার চলেও গেছে তবে আমি এখনও টিকে আছি। তাই মনে করি আমার ধৈর্যেয় আমার সফলতা । তাই আমি মেন্টলি কাজ করছি। ধৈর্য্য হারানোর কোনও কারণ নেই।’

সিনেমা মুক্তি নিয়ে অধরা বলেন, ‘সবকিছুর সমাপ্তি করে আগামী ১৯ অক্টোর দেশের প্রেক্ষাৃহে আমার ছবিটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। তৃতীয় ছবির মাধ্যমে আমি পর্দায় হাজির হচ্ছি। কিছুটা ভয়ও লাগছে আবার ভালোও লাগছে। আবার অন্য দিকে টেনশন হচ্ছে দর্শক ছবিটি কীভাবে গ্রহণ করবে। তবে আমার মনের বিশ্বাস দর্শকরা ভালো কিছুই পাবেন আর আমার জন্য ভালো কিছু হবে।
ছবিটি সম্পর্কে জানতে চাইলে অধরা খান জানান,‘ ছবিটির প্যাটার্ন আলাদা, একটি মৌলিক গল্পের ছবি এটি। এককথায় বানিজ্যিক ধারার ছবি। সকল শ্রেণীর দর্শকরা গ্রহণ করবে আমার এই ছবিটি। ছবিটি দর্শক মহলে ক্লিক করবে বলে আমি আশাকরি।

তিন বছরের ক্যারিয়ার কীভাবে দেখছেন এমন প্রশ্নের উত্তরে অধরা বলেন,‘ অনেকে ভেবে বসবেন তিন বছরের ক্যারিয়ারে অকে ছবি কিন্তু তেমন কিছুই না। হেসেই বলেন তিন বছরে পার হয়ে গেল। তিন বছরের ক্যারিয়ারে বহু চড়াই-উৎরাইয়ের মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে। নিজের অধরা স্বপ্নগুলোকে ধরতে চান তিনি। সিনেমার জগৎটা পিচ্ছিল। সতর্কতার সাথে পথ চলতে হয়।

ক্যারিয়ার সম্পর্কে বলেন, ‘আমি ভালো কিছু করতে চাই। যেন ১০এর ভিতর আমিও একজন থাকতে পারি। আমার নাম ওয়ান কিংবা স্টার এমন না কাজের মধ্যেই যেনও পরিচিতি পাই সেটা হলেই আমার চলবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ