প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাহসী নির্মাতা অনম বিশ্বাস

বিনোদন প্রতিবেদক: এ বছরের বহু প্রতীক্ষিত চলচ্চিত্র ‘দেবী’। নন্দিত কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ‘দেবী’ উপন্যাসের অনুপ্রেরণায় ‘দেবী’ ছবি নির্মাণ করেছেন অনম বিশ্বাস। সিনেমাটি আগামী ১৯ অক্টোবর সারাদেশে মুক্তি পাচ্ছে। এরই মধ্যে সিনেমাটির টিজার, ট্রেলার ও একটি গানও উপভোগ করেছেন দর্শক। ছবিটির টিজার পোস্টার দেখে অনেকেই প্রশংসাও করেছেন। সিনেমাটির মুক্তি উপলক্ষে গতকাল সোমবার ঢাকা ক্লাবে এক হয়েছিলেন ছবিটির প্রযোজক, নির্মাতা ও কলাকুশলীরা। ঢাকাই ছবির অনেক তারকারা শুভেচ্ছা জানাতে এসেছিলেন অনুষ্ঠানে।

২০১৬ সালে ‘দেবী’ সরকারি অনুদান পেয়েছিল। পরের বছর ১৮ মার্চ চলচ্চিত্রটির কাজ শেষ হয়। সরকারি অনুদানের পাশাপাশি জয়া আহসানের প্রযোজনা সংস্থা ‘সি তে সিনেমা’ ‘দেবী’-তে অর্থ লগ্নি করে। এই ছবির মাধ্যমে প্রথমবার চলচ্চিত্র প্রযোজনায় এলেন দুই বাংলার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

‘দেবী’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান, চঞ্চল চৌধুরী, অনিমেষ আইচ, ইরেশ যাকের ও শবনম ফারিয়া।

অনুষ্ঠানে চঞ্চল চৌধুরী বলেন,‘নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ বেশকিছু সফল চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন অনম বিশ্বাস। তবে তারই সৃষ্ট মিসির আলী চরিত্রটিকে চলচ্চিত্রে উপস্থাপন করার সাহস করেননি কখনো। তিনি বেঁচে থাকলে মিসির আলীকে চলচ্চিত্রে হাজির করতেন কি? সেটাও আমাদের অজানা। তবে সাহস করে অনম বিশ্বাস এই চরিত্রটি নিয়ে এসেছেন চলচ্চিত্রে। আমার মনে হয় এমন সাহস কেউ দেখাতে পারবে না। এমন সাহস দেখানোর জন্য তিনি অবশ্যই প্রশংসা পেতে পারেন।’

জয়া আহসান তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, ‘অভিনয়শিল্পী হিসেবে এ চরিত্রটি অনেক চ্যালেঞ্জিং ছিলো। আমার চরিত্রটি করতে গিয়ে মনঃস্তাত্বিক রূপান্তরের মধ্য দিয়ে আমাকে পাড়ি দিতে হয়েছে। এখন দেখার বিষয় দর্শকরা কীভাবে নিবেন সিনেমাটি, কী হতে পাওে প্রতিক্রিয়া।’

অনম বিশ্বাস বলেন, ‘আসলে মিসির আলীকে নিয়ে আমার সিদ্ধান্ত একার ছিল না। দেবী নোবেলটা জয়া আহসানের অনেক পছন্দের ছিল। আর আমরা যারা হুমায়ূন আহমেদের বই পড়েছি,বা এখনও পড়ি তাদেও প্রত্যেকের মাঝে আমরা হুমায়ূন বাসা বেঁধে আছে। তবে আমরা অনেক পরিশ্রম করে সিনেমাটি শেষ করেছি। দর্শকরা বলতে পারবেন কেমন হয়েছে মিসির আলীর চরিত্র কিংবা দেবী।