Skip to main content

বানরের পিঠা খাওয়ার গল্প

লুৎফর রহমান রিটন: দেশ এক মজাদার সুস্বাদু পিঠা বানরেরা বাণী দেয় আহা মিঠা মিঠা। বানরেরা সেই পিঠা খাইবার তরে 'সকলে মিলিয়া খাবো' ঐক্যটা গড়ে। পিঠা রক্ষার তরে জান পেরেশান অতঃপর খোলে তারা নতুন দোকান। পিঠা মোটে একখান বানরেরা পাঁচ পঞ্চ বানরে আহা শুরু করে নাচ। পুরো পিঠা একজনে খাইবার চায় সন্দেহ এর দিকে ওর দিকে ধায়। একদিন রেগেমেগে এ উহারে কয়-- ''--তুই অতি নীতিহীন তোকে নিয়ে ভয়। ভ্রমিয়া কমিটমেন্ট সবকিছু ফেলে আমাদের ছেড়ে যাবি 'কিছুমিছু' পেলে। --আমি যদি নীতিহীন তুই তবে কি? গোপনে উড়াল দিবি বুঝে নিয়েছি। দেশে কোনো সংকট হইলে উদয় বিদেশে যাবার তাড়া তোর শুরু হয়। --এটিএনে গেয়েছিলি ধর্মের গান এক হাতে গীতা এক হাতে কুরআন! --যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাবার তরে তোর শাদা জামাতাটা কেঁদেকেটে মরে। --রেলপথে দৌড়ানি ম্যারাথন রেস বাপ-বেটা দু'জনেরই বাটপারি কেস। --আর তুই চেয়েছিলি তরতাজা লাশ ভার্সিটি এলাকায় ক'রে সন্ত্রাস। টেলিফোন বার্তাটা হয়েছিলো ফাঁস অতঃপর ঘটেছিলো শ্রীঘরে নিবাস। --তোর ছিলো হুংকার বুলি ফাঁকা ফাঁকা গৃহপালিতের ছাপ ললাটেই আঁকা। স্বৈরাচারের কাঁধে করেছিলি ভর মন্ত্রীত্বের লোভ ছিলো বরাবর...'' এ উহারে প্রতিদিন করে সন্দেহ (পায় নাই ১৩ ভোট একবারও কেহ!) ক্ষমতার গদি ডাকে আয় আয় আয় বানরেরা তৎপর, পিঠা খেতে চায়! সূত্র: লুৎফর রহমান রিটন এর ফেসবুক থেকে নেয়া