প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আলীকদমে শরীর থেকে মাথা ছিন্ন গরু ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

আলী কদম প্রতিনিধি: আলীকদম উপজেলার ৪নং করুপপাতা ইউনিয়নের ইন্দুর চর নামক স্থান থেকে (১৫ ই অক্টোবর)  এক যুবকের শরীর থেকে মাথা ছিন্ন অধ্য গলিত করা লাশ উদ্ধার ও সন্দেহ ভাজন ৭ জনকে পোয়ামুহুরী আর্মি ক্যাম্পের সহায়তায়  আটক করেছে আলীকদম থানা পুলিশ।
জানা যায়, নিহত ৩নং নয়াপাড়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোহাম্মদ ইউনুসের ৩য় পুত্র মোঃ হেলাল উদ্দিনের।
এদিকে সন্দেহভাজন ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটকৃতরা হলেন, দুর্গম কুরুক পাতা ইউনিয়নের লোহব ম্রো (৪০) মারান ম্রো (৫০), মেনচুক ম্রো (৩০), পাছুয়া ম্রো (৩৫), মেনতাং ম্রো (৩০) এবং ৩নং নয়াপাড়া ইউনিয়নের মাংক্রাত ম্রো (২৮) ও মাংইন ম্রো (২৮)। আটকৃত লোহব ম্রো মুরুং ন্যাশনাল ডেমোক্রেসী পার্টির অন্যতম নেতা। তারা গত ০৫ নভেম্বর ২০১৫ সালে অস্ত্রসহ আত্মসমর্পন করে।
স্থানীয় গরু ব্যবসায়ীরা বলেন, মোঃ হেলাল উদ্দিন একজন গুরু ব্যবসায়ী, সে পাহাড় থেকে গরু কিনে এনে বিভিন্ন ব্যবসায়ীকে বিক্রি করেন, ৫ ই অক্টোবর রোজ শনিবার বিগতদিনের মত  হেলাল উদ্দিন  গরু কেনার জন্য পোয়ামুহুরী বাজার থেকে ইন্দু নামক স্থানে একটি গরু কিনতে যান, সেদিন থেকে হেলাল উদ্দিনের কোন খোঁজ খবর পাওয়া যায় নি বলে জানান স্থানীয় গরু ব্যবসায়ীরা।
হেলাল উদ্দিনের বাবা মোহাম্মদ ইউনুস বলেন আমার ছেলের সাথে ৫ ই অক্টোবর আগে পর্যন্ত কথা হয়েছে  কিন্তু ৫ই অক্টোবরের পর তাহার ছেলের সাথে কোন কথা বা যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি।বৈরী আবহাওয়ার কারণে আমরাও যোগাযোগ করতে পারি নি।পোয়ামুহুরী থেকে আসা নৌকার মাঝি থেকে আমার ছেলের খোঁজখবর নিয়ে গিয়ে তারা আমাকে জানান তারা (নৌকার মাঝি)  হেলালকে ৫ই অক্টোবরের পর থেকে দেখে নি, পরে বিষয়টি আমি আলীকদম জোনে জানালে তারা আমাকে আশ্বস্ত করে তারা দ্রুত বিষয়টি কি হয়েছে দেখবেন।
এই সময়ের মধ্যে আমার ছেলে মাথা কাটা লাশ পাওয়া খবর পাই।তিনি আরও বলেন, আমার ছেলে তো কারও ক্ষতি করেনি, সে সৎ ভাবে ব্যবসা করছিল কেন তাকে প্রাণ দিতে হল?  আমি আমার ছেলে হত্যার সঠিক বিচার ও প্রকৃত আসামিদের   কঠোর শাস্তি চাই। যাতে পাহাড়ে এই ভাবে কারও সন্তান না হারায়।
এদিকে নিহত হেলালের চার বছরের বিবাহিত জীবনে দুই সন্তানের জনক,এক সন্তান সদ্য ৫ দিন আগে জন্ম গ্রহণ করেছে। সে সন্তানের মুখ নিহত হেলাল দেখে নি বলে জানান হেলালের মা  মমতাজ বেগম।
উক্ত বিষয়ে আলীকদম থানার উপপরিদর্শক মোঃ আলমগীর বলেন আলীকদম সদর থেকে ইন্দু নামক স্থানটি নদী পথে প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূর্গম এলাকা হওয়া লাশ উদ্ধার করে আলীকদম সদরে আনতে অনেক সময় বিলম্বিত হয়েছে । লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবানের সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন সন্দেহভাজন আটককৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে প্রকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ