Skip to main content

মিস্ত্রির সামান্য ভুলে ২ কোটি ডলারের যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত

মাহাদী আহমেদ : বেলজিয়ামে মিস্ত্রির সামান্য এক ভুলে বিধ্বস্ত হয়েছে সুপারসনিক গতির একটি যুদ্ধবিমান। প্রায় দুই কোটি ডলারের ওই যুদ্ধবিমানে ভুল করে গুলি চালিয়েছিলেন তিনি। আর এতেই মুহূর্তের মধ্যে ভেঙে পড়ে শব্দের গতির চেয়ে দ্রুতগতিতে ছুটতে সক্ষম ওই যুদ্ধবিমান। অন্য একটি বিমান মেরামতের কাজ করার সময় হঠাৎ মাথার ওপর চলে আসে ওই যুদ্ধবিমান। ঘটনার আকস্মিকতা বুঝতে না পেরে আচমকাই গুলি ছুঁড়েন বিমান মেরামতের কাজে নিয়োজিত ওই ব্যক্তি। বেলজিয়ামের একটি সেনা ঘাঁটির কাছে আগুনে পুড়ে যাওয়া বিমানের মেরামত করছিলেন তিনি। এসময় যুদ্ধবিমানটি তার কাছাকাছি চলে আসে। ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে বলছে, যুদ্ধবিমান এফ-১৬ মেরামত করছিলেন দুই টেকনিশিয়ান। এসময় ওই বিমানটি কাছাকাছি চলে আসায় তাদের একজন ২০মিলিমিটারের বন্দুক গ্যাটলিং থেকে গুলি নিক্ষেপ করেন। অত্যাধুনিক এই বন্দুক মিনিটে ৬ হাজার গুলি ছুঁড়তে পারে। দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সুদইনফো বলছে, বিধ্বস্ত ওই যুদ্ধবিমানটি একটি প্রশিক্ষণে অংশ নেয়ার কথা ছিল। এজন্য ১০ হাজার লিটার জ্বালানি লোড করা হয়েছিল। বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার সময় উচ্চশব্দে দুই টেকনিশিয়ান বড় ধরনের কোনো ক্ষতির শিকার না হলেও শ্রবণশক্তি হারিয়ে ফেলেছেন। বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলস থেকে ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণের ফ্লোরেন্স বিমান ঘাঁটিতে এ ঘটনা ঘটে। বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার পরপরই দেশটির বেসামরিক কর্মকর্তা-সহ প্রায় ৩০ জন অগ্নিনির্বাপণকর্মী ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেন। বাল্টিক থেকে উদ্ধারকাজে যোগ দিতে ব্রাসেলসে পৌঁছে কর্নেল দিদিয়ের পলোমি বলেন, এতে কি ধরনের বিপর্যয় হয়েছে তা আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না। বেলজিয়ামের প্রতিরক্ষা ট্রেড ইউনিয়নের প্রধান বোরিস মরেনভিলে বলেন, এটি ইচ্ছাকৃত অথবা সন্ত্রাসী উদ্দেশ্য থেকে বিধ্বস্ত করা হয়েছে বলে তারা মনে করেন না। - নাইন নিউজ, জাগো নিউজ

অন্যান্য সংবাদ