প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুরেন্ড সীমান্তে পাকিস্তান আফগানিস্তান বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি

ইমরুল শাহেদ : আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের ডুরেন্ড লাইন সীমান্তে দুই দেশের সীমান্ত রক্ষীদের মধ্যে মাঝেমধ্যেই গোলাগুলির ঘটনা ঘটছে। রোববারও দুই দেশের সীমান্তরক্ষীদের মধ্যে গোলাগুলি হয়। তবে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। আফগানিস্তানের কান্দাহার প্রদেশের নিরাপত্তা সদরদপ্তর থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনী জোরপূর্বক আফগানিস্তানের ভূখ-ে প্রবেশ করে।

কান্দাহার পুলিশের মুখপাত্র জিয়া দুররানী বলেছেন, সামসামনি এই গুলি বিনিময়ের কারণে পাকিস্তান স্পিন বলডাক-চামন সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে। এই সীমান্ত দিয়েই দুই দেশের মধ্যে যাতায়াত করা হয়। ১৮৯৩ সালে প্রতিষ্ঠিত দুরেন্ড দিয়ে পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সীমান্তের বিস্তৃতি হলো দুই হাজার ৪৩০ কিলোমিটার। পাকিস্তান ২০১৭ সাল থেকেই এই সীমান্তে কাঁটা তারের বেড়া বসাতে শুরু করেছে। পাকিস্তানের দৈনিক এক্সপ্রেস ট্রিবিউন জানিয়েছে, আফগানিস্তান শুরু থেকেই এই কাঁটা তারের বেড়া প্রকল্পের বিরোধিতা করে আসছে।

আফগানিস্তান আনুষ্ঠানিকভাবে এই লাইনকে আন্তর্জাতিক সীমান্ত হিসেবে স্বীকার করে না। তবে ২০১৭ সালেই পাকিস্তান ১৫০ কিলোমিটারের বেড়া প্রতিষ্ঠার কাজ শেষ করেছে।

পাকিস্তান সেনা বাহিনীর বর্তমান মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর আগেই ভয়েস অব আমেরিকাকে বলেছেন, তাদের লক্ষ্য হলো ২০১৮ সালের মধ্যে বেড়া দেওয়ার কাজ শেষ করা। তবে পাকিস্তান যখন আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে, তখনই এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটছে। পাকিস্তানের সেনা প্রধান কামার বাজওয়া ও আফগানিস্তান-পাকিস্তানের জন্য নিয়োজিত যুক্তরাজ্যের বিশেষ প্রতিনিধি গারেথ বালের মধ্যেও ল-নে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ইয়ন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ