প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বৈশ্বিক উষ্ণতায় মানুষ কিভাবে দায়ী হয়, ভেবে কূল পান না ট্রাম্প !

লিহান লিমা: দীর্ঘদিন ধরেই জলবায়ু পরিবর্তনকে অস্বীকার করে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই ধারণাকে যুক্তরাষ্ট্রের উৎপাদনব্যবস্থাকে পেছনে ফেলার জন্য চীনের ষড়যন্ত্র বলেও মন্তব্য করেছিলেন তিনি। সম্প্রতি সিবিএস নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে ট্রাম্প বলেন, সম্ভবত, বৈশ্বিক উষ্ণতার জন্য মানুষ দায়ী নয়, পরিবেশ বিজ্ঞানীদের অবশ্যই রাজনৈতিক এজেন্ডা আছে।

সিবিএস ‘৬০ মিনিট’ প্রোগ্রামে ট্রাম্প আরো জানান, তিনি মনে করেন না জলবায়ু পরিবর্তন মনুষ্যসৃষ্ট। তাই মার্কিন অর্থনীতির ক্ষতি করে তিনি এই খাতে লক্ষ কোটি ডলার বরাদ্দ দিতে পারবেন না।’ ট্রাম্প আরো বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনকে অস্বীকার করছি না। আমি তবে আমি মনে করি এতে ভিন্নতা রয়েছে। কিছু একটা ঘটছে। কিছু পরিবর্তনে জলবায়ু আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসবে।’ তবে বৈশ্বিক উষ্ণতা কিভাবে শীতল হবে তার কোন ব্যাখ্যা দেন নি ট্রাম্প।

এদিকে গত সপ্তাহে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ইন্টারগর্ভমেন্টাল প্যানের অন ক্লাইমেট চেঞ্জ (আইপিসিসি) এর প্রতিবেদনে বৈশ্বিক তাপমাত্র ৩ থেকে ৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস পর্যন্ত বৃদ্ধি পাওয়ার হুঁশিয়রি দেয়া হয়। বিজ্ঞানীরা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে বিশ্ব নেতারা কার্যকর পদক্ষেপ না নেয়ায় আগামীতে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে বিশ্বকে। আর এই পদক্ষেপ নিতে হবে ১২ বছরের মধ্যেই। তারা জানান, ভূ-পৃষ্ঠের তাপমাত্রা সম্প্রতি ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেয়েছে, যা সমুদ্রে পানির উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য যথেষ্ট এবং বিশ্বজুড়ে ভয়াবহ ঝড়, বন্যা এবং খরা দেখা দিতে পারে। বিবিসি, গার্ডিয়ান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ