প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কালকিনিতে উপজেলা পরিষদের জায়গা দখলের হিড়িক

এইচ এম মিলন, কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি: মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা পরিষদের সরকারি জায়গা অবৈধভাবে দখল করে দোকান নির্মানের হিড়িক পড়েছে। এ যেন দেখার মত কেউ নেই। তবে রহস্যজনক কারনে উপজেলা প্রশাসন নীরব ভুমিকা পালন করছেন বলে ব্যাপক অভিযোগ উঠেছে। এতে করে উপজেলা পরিষদের সৌন্দর্য চরম হুমকির মুখে পড়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। এ জায়গা দখলের ঘটনার সঙ্গে জরিত রয়েছে উপজেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মচারী ও স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

সরেজমিন ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলা পরিষদের পুকুর পাড়ের চারিদিকে সৌন্দর্যবর্ধকের জন্য খালি জায়গা রাখা হয়। কিন্তু ওই জায়গা একের পর এক দখল করে দোকান নির্মান করেছেন উপজেলা প্রকৌশলী অফিসের সুপার ভাইজার শাহজাহান মিয়া, প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের কর্মচারী রেজাউল ও উপজেলা ভুমি কর্মকর্তার গাড়ি চালক লালন, স্থানীয় প্রভাবশালী এসকেন ও নূরুসহ বেশ কয়েকজন। এ জায়গা দখলের ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলামের কাছে উপজেলা চেয়ারম্যান তৌফিকুজ্জামান শাহিনসহ স্থানীয় সুশিল সমাজ মৌখিক অভিযোগ করেছেন। কিন্তু কোন অভিযোগই রহস্যজনক কারনে আমলে নিচ্ছেনা উপজেলা প্রশাসন। এতে করে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় লোকজন।

স্থানীয় বাসিন্দা রাশেদ ও রিপনসহ বেশ কয়েকজন অভিযোগ করে বলেন, উপজেলা পরিষদের জায়গা দখল হয়ে যাচ্ছে অথচ প্রশাসন নীরব। আমরা চাই ওই জমি দখল মুক্ত করা হোক। তানাহলে উপজেলা পরিষদের সকল সৌন্দর্য ধীরে ধীরে বিলুপ্তি হয়ে যাবে।

দখলদার উপজেলা প্রকৌশলী অফিসের সুপার ভাইজার শাহজাহান বলেন, সবাই দোকান নির্মান করায় তাদের দেখাদেখিতে আমি দোকান তুলেছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমি দেখতেছি।

উপজেলা চেয়রম্যান তৌফিকুজ্জামান শাহিন বলেন, পরিষদের জায়গা দখলের ঘটনায় আমি ইউএনওকে অবহিত করেছি। তবে শিঘ্রই দখল মুক্ত করা হবে।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুর রহমান বলেন, আমি ব্যবস্থা নেব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ