প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ক্রিসেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান কাদেরকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

তরিকুল ইসলাম সুমন : রাষ্ট্রায়ত্ব জনতা ব্যাংক থেকে ঋণের নামে প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগে ক্রিসেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ কাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রোববার দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সকাল সোয়া ১০টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন দুদকের সহকারী পরিচালক ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা গুলশান আনোয়ার প্রধান। দুদকের ঊর্ধ্বতন একটি সূত্র এটি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগের বিষয়ে দুদক জানায়, কাগজে-কলমে ক্রিসেন্ট গ্রুপ চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি করেছে হংকং ও ব্যাংককে। সেই রপ্তানি বিল ক্রয় করে গ্রুপটিকে নগদ টাকা দিয়েছে ব্যাংক। এখন রপ্তানির টাকা ফেরত আসছে না। বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্ত বলছে, সরকার থেকে নেওয়া নগদ সহায়তার টাকা দুবাই ও যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করেছে গ্রুপটি। জনতা ব্যাংকের ইমামগঞ্জ করপোরেট শাখায় গ্রাহক হিসেবে ক্রিসেন্ট গ্রুপের ছয় প্রতিষ্ঠানের ঋণ ২ হাজার ৭৬০ কোটি টাকা। ব্যাংক কোম্পানি আইন অনুযায়ী, ব্যাংকে রক্ষিত মূলধনের ২৫ শতাংশের বেশি কোনো গ্রুপকে অর্থায়ন করা যায় না। কিন্তু ব্যাংকটির শাখা থেকে ঋণ হিসেবে গেছে মূলধনের ৫৫ শতাংশ।

ক্রিসেন্ট গ্রুপের ছয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ক্রিসেন্ট লেদার প্রোডাক্টস, ক্রিসেন্ট ট্যানারিজ, রূপালী কম্পোজিট লেদার, লেক্সকো লিমিটেড, গ্লোরি অ্যাগ্রোর কর্ণধার এম এ কাদের। আর রিমেক্স ফুটওয়্যার নামে অপর একটি প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার তার ভাই এম এম আজিজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ