প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বের সেরা উদ্ভাবনী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো…

প্রথম আলো: বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ বছর বিশ্বের সেরা ১০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি তালিকা করেছে। বিজ্ঞান, তথ্যপ্রযুক্তি, যোগাযোগপ্রযুক্তি, গবেষণা ও উদ্ভাবনী কাজে গবেষণার ভিত্তিতে এ তালিকা করা হয়েছে। বিশ্বের সেরা উদ্ভাবনী বিশ্ববিদ্যালয় নামের এ তালিকায় শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়।

চার বছর ধরে স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় উদ্ভাবনীতে সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শীর্ষেই আছে। বিশ্বের সেরা উদ্ভাবনী বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে অ্যাডভান্স সায়েন্স, নতুন ধারার প্রযুক্তির সঙ্গে শিক্ষার্থীদের পরিচয় করিয়ে দেওয়া, শিক্ষার্থীদের সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার শিক্ষা কারিকুলাম প্রণয়নের কাজ চালিয়ে যাওয়ায় সবচেয়ে এগিয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়।

সম্প্রতি স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় তাদের গবেষণার ক্ষেত্র বাড়িয়ে চলেছে। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য ক্যামেরা প্রযুক্তি, চালকবিহীন গাড়ি এবং অসুস্থ হলে মানুষকে কী পরিমাণ ওষুধ সেবন করতে হতে পারে—এমন নানান উদ্ভাবনী ব্যাপারে স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে।
রয়টার্সের র‍্যাঙ্কিংয়ে এশিয়ার দেশগুলো এবং যুক্তরাজ্যের চেয়ে এগিয়ে আছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তালিকায় মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ের জয়জয়কার। ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি) দ্বিতীয়, হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি তৃতীয় স্থানে আছে। ২০১৮ সালের আগের তিন বছরে এই তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় সেরা তিনে ছিল। দ্য ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভানিয়া আছে চারে। এ নিয়ে দ্বিতীয়বার যুক্তরাষ্ট্রের এই বিশ্ববিদ্যালয়টি র‍্যাঙ্কিংয়ে জায়গা করে নিল। সেরা পাঁচ ও ছয়ে আছে মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়। পাঁচে দ্য ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটন আর ছয়ে দ্য ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস। দ্য ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটন গতবারের চেয়ে এবার দুধাপ এগিয়েছে।

সেরা সাতে বেলজিয়ামের ক্যাথলিক ইউনিভার্সিটি লুভেন। র‍্যাঙ্ক অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে সেরায় প্রথম ক্যাথলিক ইউনিভার্সিটি লুভেন। ইমপিরিয়াল কলেজ লন্ডন, ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ক্যারোলাইনা চ্যাপেল হিল এবং ভ্যানডারবিল্ট ইউনিভার্সিটি আছে যথাক্রমে আট, নয় ও দশে।

রয়টার্সের উদ্ভাবনী বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা দশের আটটি বিশ্ববিদ্যালয় গতবার সেরা দশে ছিল।

এবারের তালিকায় সবচেয়ে এগিয়েছে ইউনিভার্সিটি অব ম্যানচেস্টার। বিশ্ববিদ্যালয়টি ২৭ ধাপ এগিয়েছে। গতবারের তালিকার ৮০-তে থাকা এই বিশ্ববিদ্যালয় এবার ৫৩-তে উঠে এসেছে। শক্তিশালী পদার্থ নিয়ে নিয়মিত গবেষণার কারণে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের এ উল্লম্ফন।

এশিয়ার মান রক্ষা জাপান-কোরিয়ায়
সেরা ১০-এর তালিকায় আমেরিকা ও ইউরোপের সংখ্যা বেশি থাকলেও জায়গা করে নিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া, চীন ও জাপান। এশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়গুলো জায়গা করে নিয়েছে গবেষণা ও উদ্ভাবনীতে মূল লক্ষ্য নির্ধারণ করায়।

সর্বেসর্বা যুক্তরাষ্ট্র
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো দিন দিন গবেষণা ও উদ্ভাবনী কাজে প্রচুর ডলার ব্যয়ের ফল হাতেনাতেই পাচ্ছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিজ্ঞানী, গবেষকেরা বিশ্বকে এগিয়ে নিতে নতুন নতুন কাজ করে যাচ্ছেন। তালিকায় যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬টি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে।
দেশ হিসেবে জার্মানি ও জাপান আছে দ্বিতীয় স্থানে। এ দুটি দেশের নয়টি করে বিশ্ববিদ্যালয় তালিকায় আছে। দক্ষিণ কোরিয়ার আটটি, চীন, ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্যের আছে ৫টি করে। সুইজারল্যান্ডের আছে ৩টি, বেলজিয়াম, কানাডা, ইসরায়েল, নেদারল্যান্ডসের দুটি করে।

অঞ্চলের ভিত্তিতে জরিপের দিকে তাকালে উদ্ভাবনী সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় উত্তর আমেরিকা থেকে সবচেয়ে বেশি বিশ্ববিদ্যালয় জায়গা করে নিয়েছে। ১০০ টির মধ্য ৪৮টি উত্তর আমেরিকা (যুক্তরাষ্ট্র ৪৬, কানাডা ২) থেকে। ইউরোপ থেকে ২৭, এশিয়া থেকে ২৩ এবং মধ্যপ্রাচ্য থেকে দুটি বিশ্ববিদ্যালয় আছে। আফ্রিকা, দক্ষিণ আমেরিকা এবং ওশেনিয়া অঞ্চল থেকে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় তালিকায় জায়গা করে নিতে পারেনি। তথ্যসূত্র: ইকোনমিক টাইমস।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ