প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হিসাববিজ্ঞান পেশার মান উন্নয়নে কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্টস আইন হচ্ছে

আনিসুর রহমান তপন : হিসাববিজ্ঞান পেশার মান উন্নয়নে কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্টস আইন, ২০১৮ এর খসড়া প্রনয়ণ করেছে সরকার। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এ খসড়াটি সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদিন পেতে যাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাগেছে।

সূত্র জানায়, দি ইনিস্টিটিউট অব কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট একাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি) এর সাধারণ সম্পাদক ও অর্থমন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. আব্দুর রহমান খান জানান, ১৯৭৭ সালের কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট একউন্ট্যান্টস অর্ডিনেন্সটিকে আরো সহজ ও যুগোপযোগী করে তৈরী করা হয়েছে। বিদ্যমান অর্ডিনেন্সের সঙ্গে প্রস্তাবিত আইনের বড় কোনো পার্থক্য নেই। তবে জনস্বার্থে ফাইনান্সিয়াল রিপোর্টিং আইন, ২০১৫ এর কিছু ধারা প্রস্তাবিত আইনের খসড়ায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

তাছাড়া কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট একউন্ট্যান্টস অর্ডিনেন্সের আওতায় বিদ্যমান কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ নামে প্রতিষ্ঠিতি ইনস্টিটিউটের ব্যবস্থাপনা ও প্রশাসনিক কার্যাবলী পরিচালনার লক্ষ্যে খসড়ায় ২১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কাউন্সিল গঠনের কথা বলা হয়েছে। আগে যা ১৬ সদস্য বিশিষ্ট ছিল। আগে কাউন্সিলে আঞ্চলিক প্রতিনিধিত্ব না থাকলেও নতুন আইনে তা রাখার কথা বলা হয়েছে।

কাউন্সিল গঠনের জন্য বলা হয়েছে, ইনিস্টিটিউটের সদস্যরা ফেলোগণের মধ্য থেকে ১৬ জন প্রতিনিধি নির্বাচন করবেন। এতে আঞ্চলিক প্রতিনিধি থাকবে একজন। এর বাইরে কাউন্সিলে সরকার মনোনীত বানিজ্য, অর্থ, আইন, শিল্প ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন করে যুগ্মসচিব পদমর্যাদার প্রতিনিধি থাকবেন। আবার কাউন্সিলের সদস্যরাই তাদের মধ্য থেকে একজন প্রেসিডেন্ট ও ৪ জন ভাইস প্রেসিডেন্স নির্বাচিত করবেন।

এই কাউন্সিল শিক্ষাদান, পাঠদান, প্রশিক্ষণ, পরীক্ষা সংক্রান্ত কার্যক্রম গহণ করবে। এভাবে পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নে বিভিন্ন শিক্ষাদান, পাঠদান, পরীক্ষা ও প্রশিক্ষণের ফি নির্ধারণ করবে তারা। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের নিবন্ধন, পেশাগত উন্নয়ন সংক্রান্ত কর্মসূচির নীতি নির্ধারণের পাশাপাশি গাইড লাইন প্রণয়ন করবে। আইনে কাউন্সিলের কার্যাবলী সুষ্ঠুভাবে করার জন্য এক বা একাধিক কমিটি গঠনের মাধ্যমে তার কর্মপরিধি ও সদস্য নির্ধারণ করবে।

এছাড়াও ইনস্টিটিটিউটের একজন নির্বাহী পরিচালক থাকবে তাও বলা হয়েছে আইনের খসড়াতে।

সম্পাদনা : তরিকুল ইসলাম সুমন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ