Skip to main content

খাশোগজির বিষয়ে সৌদি যুবরাজ ও বাদশাহের সঙ্গে কথা বলবেন ট্রাম্প

নূর মাজিদ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট শুক্রবার সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ও তার পিতা বাদশাহ সালমানের সঙ্গে ভিন্নমতালম্বি সৌদি সম্পাদক খাশোগি নিখোঁজের বিষয়ে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন। গত ১২ই অক্টোবর শুক্রবার সিনিসিনাটির লুঙ্কান বিমানবন্দরে অপেক্ষারত সাংবাদিকদের এমন কথা বলেন। গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশের পর থেকেই সাংবাদিক জামাল খাশোগজির কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা। তাকে সৌদি কূটনীতিক মিশনে হত্যা করা হয়েছে এমন দাবি সত্যি হলে সৌদি আরবের প্রতি কঠোর পদক্ষেপ নেবেন ট্রাম্প। গত শনিবার সিবিএস নিউজের সিক্সটি মিনিট অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে তিনি এমন কথাও জানান। তবে সৌদি বাদশাহ ও তার পুত্রের সঙ্গে ট্রাম্প কি নিয়ে আলোচনা করবেন এখন সেটাই রহস্য। ইতোমধ্যেই মার্কিন গোয়েন্দারা নিশ্চিত হয়েছে যে, যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া থেকেই জামাল খাশোগজিকে হত্যার নীল নকশা করে সৌদি গোয়েন্দারা এবং তাকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। এই নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনকে সামনে রেখে মার্কিন পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের তরফ থেকেই চাপের মুখে রয়েছেন ট্রাম্প। বিশেষ করে, খাশোগজি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেরও একজন সম্মানিত অধিবাসী ছিলেন। ওয়াশিংটনের প্রভাবশালী সাংবাদিক ও একাডেমিক মহলে একজন সুপরিচিত ও বিনয়ী ব্যক্তি বলেই পরিচিত ছিলেন জামাল খাশোগজি। এমতাবস্থায়, আগামী নভেম্বরের মধ্যবর্তী নির্বাচনের আগে গণধ্যমকেও আর নতুন করে চটাতে চাইছেন না ট্রাম্প। তবে এখন পর্যন্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রভাবশালী এই দুই রাজপুরুষের সঙ্গে কথা বলেছেন কিনা তা নিশ্চিত করেনি হোয়াইট হাউজ। এদিকে গত রোববার সৌদি আরব তাদের আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে জানিয়েছে, খাশোগি ইস্যুতে দেশটির বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিলে তা মোকাবেলায় আরও কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের বরাত দিয়ে সরকারি বার্তা সংস্থা এসপিএ এমন কথা জানায়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়য়ের আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে বলা হয়, কোন ধরণের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা, রাজনৈতিক চাপ বা মিথ্যে অভিযোগের কাছে মাথা নত করবেনা সৌদি আরব। এই ধরণের যে কোন পদক্ষেপ সৌদি সরকার এবং জনগণ ঐক্যবধ্য হয়ে মোকাবেলা করবে বলেই সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রালয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়। এসময় মন্ত্রণালয়টি জানায়, এই ধরণের যে কোন ধরণের পদক্ষেপের বিরদ্ধে আমরা দৃঢ় অবস্থান নেব। সৌদি আরব বিশ্ব অর্থনীতির উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, এটাও সকলের স্মরণে রাখা উচিৎ। আরব নিউজ/ বিবিসি

অন্যান্য সংবাদ