Skip to main content

প্রলাপ

নুসরাত শরমীন : ধ্রুপদী জোছনারা ঢেকে গেছে অমাবস্যার আঁধারে বুঝি রাত পোহাবে না আর নিষ্ঠুর নিস্তব্ধতা, টিনের চালে টুপটাপ শিশির নিশির। ফুল, পাখি সুখী জীব অথৈ ঘুমে নিদ্রাদেবীর কোলে। দেবী, প্রসন্ন হও, কৃপা কর অধমেরে এই গৃহে পদধূলি দাও- স্মৃতিভ্রষ্ট হতে চাই আজ কে আমি নাম-ধাম ফেলে আসা পথঘাট, যন্ত্রণার খানাখন্দ সবকিছু মুছে দাও.... বাইরে আঁধার, ভেতরেও অন্ধকার ঘোচে না অন্ধকারে যাপিত জীবনের সবটুকু ক্ষণ চক্কর কাটে মগজের অলিগলি শিরায় শিরায়। এমন বিষাদময় রাত বড় ভয়ংকর যেন হিমঘরে পড়ে অছি অসংখ্য শবের মাঝে আমিও একজন বোধের আড়াল থেকে ফণা তোলে কষ্টের অজগর ধ্রুপদী জোছনায় প্লাবিত চরাচর ঢেকে যায় অশুভ অমাবস্যায়। তারিখ মনে নেই (ইমার্জেন্সি-টু) স্কয়ার হাসপাতাল।