প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কয়েক বছর ধরে কর ফাঁকি দিচ্ছেন ট্রাম্প জামাতা

লিহান লিমা: প্রায় ৯ বছর ধরে জাতীয় আয়কর ফাঁকি দিচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা ও জ্যেষ্ঠ পরামর্শক জ্যারেড কুশনার। ৩২ কোটি ৪০ লাখ ডলারের নিট সম্পদ ও রিয়েল এটেস্ট থেকে বছরে লাখো ডলার আয় করা সত্ত্বেও কর ফাঁকিবাজদের তালিকায় উঠে এলো তার নাম।

সম্প্রতি নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রকাশিত আর্থিক বিশ্লেষণিতে এই তথ্য উঠে আসে। এতে দেখা যায়, ২০০৯ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত আয়কর সঠিকভাবে পরিশোধ করেন নি কুশনার। সেই সঙ্গে ব্যক্তিগত আয়ের কর ফাঁকি দিতে দেখিয়েছেন রিয়েল এটেস্ট ব্যবসায়ের অবমূল্যায়ন। করযোগ্য আয়ের পরিমাণ কম দেখানোর জন্য তার আবাসন খাতের বিনিয়োগে অবচয় হিসাব বড় করে দেখানো হয়েছে। যদিও কুশনারের আইনজীবী বলছেন, ‘তিনি আইন ও নীতি অনুযায়ী কর পরিশোধ করেছেন।’ এদিকে কুশনার কি পরিমাণ কর ফাঁকি দিয়েছেন তা নিউ ইয়র্কের প্রতিবেদনে উঠে আসে নি। এতে বলা হয়, এই সময়ের মধ্যে অনেক বছরই তিনি কর দেন নি বা কম কর পরিশোধ করেছেন।

এছাড়া ট্রাম্প প্রশাসনের দায়িত্ব গ্রহণের পর ব্যক্তিগত ব্যবসা থেকে সরে দাঁড়ালেও জুনে এক প্রতিবেদনে উঠে আসে, ২০১৭ সালে ফার্স্ট ডটার ইভানকা ট্রাম্প ও কুশনারের বাহ্যিক বার্ষিক আয় ছিল কমপক্ষে ৮ কোটি ২০ লাখ।

এর আগে, নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে উঠে এসেছিল তরুণ থাকাকালে ট্রাম্প তার বাবাকে কয়েক লাখ ডলারের কর ফাঁকি দেয়ার উপায় বাতলে দিয়ে নিজের ও পরিবারের সম্পদ বৃদ্ধি করেছেন। নব্বইয়ের দশকে ট্রাম্প তার বাবার রিয়েল এস্টেট ব্যবসা থেকে কমপক্ষে ৪১ কোটি ৩০ লাখ ডলার পান। যার বেশির ভাগই এসেছিল কর ফাঁকি, জালিয়াতি ও আর্থিক অনিয়মের মাধ্যমে। গার্ডিয়ান, ডেইলি মেইল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ