প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদা জিয়ার জামিন বাতিলের বিষয়ে আদেশ ১৬ অক্টোবর

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট : জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল হবে কি-না এ বিষয়ে আদেশের জন্য নতুন তারিখ আগামী ১৬ অক্টোবর ধার্য করেছেন আদালত। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে রবিবার (১৪ অক্টোবর) রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতের বিচারক আখতারুজ্জামান এই আদেশ দেন। এ নিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো খালেদা জিয়ার জামিন বাতিলের বিষয়ে আদেশ পেছাল।

আজ রবিবার মামলাটিতে খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করা হবে কি-না এবং মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে রায়ের তারিখ ঘোষণা করা হবে কি-না এ বিষয়ে আদেশের দিন ধার্য ছিল। খালেদা জিয়ার পক্ষে উচ্চ আদালতে (হাইকোর্টে) মামালটি আজ শুনানির জন্য আছে বলে শুনানিতে বলেন, খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া। তিনি বলেন, ‘এই আদেশের বিরুদ্ধে আজ মামলাটি উচ্চ আদালতে (হাইকোর্ট) আদেশের জন্য আছে। মামলাটি ৯৫ নম্বর সিরিয়ালে (আইটেমে) আছে। আমরা আদেশ পেলে আপনার আদালতে দাখিল করবো। তাই খালেদা জিয়ার জামিন বহাল রাখার আবেদন করছি।’

এদিকে, দুদকের আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল বলেন, ‘আজকে আদেশের জন্য যেহেতু উচ্চ আদালতে দিন ধার্য আছে। তাহলে আগামীকাল তারিখ রাখার আবেদন করছি।’

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক ১৬ অক্টোবর দিন ধার্য করেন।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের ৮ আগস্ট খালেদা জিয়াসহ চার জনের বিরুদ্ধে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলাটি দায়ের করে দুদক। এ মামলায় ২০১২ সালের ১৬ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক।

মামলাটিতে খালেদা জিয়াসহ অপর আসামিদের বিরুদ্ধে ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ তৎকালীন বিচারক বাসুদেব রায় অভিযোগ গঠন করেন।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়া ছাড়া অভিযুক্ত অপর তিন আসামি হলেন- খালেদা জিয়ার তৎকালীন রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছ চৌধুরীর তৎকালীন একান্ত সচিব জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান। হারিছ চৌধুরী মামলার শুরু থেকেই পলাতক।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ