প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পরেশ বড়ুয়ার দায় স্বীকার
হিন্দু বাংলাদেশিদের নাগরিকত্বের প্রতিবাদে গুয়াহাটিতে উলফার বোমা বিস্ফোরণ

মাছুম বিল্লাহ : হিন্দু বাংলাদেশিদের নাগরিকত্ব দেয়ার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আসামের রাজধানী গুয়াহাটিতে বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে স্বাধীনতাকামী সংগঠন ইউনাটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অব আসাম (উলফা)।

শনিবার ১২টার দিকে গুয়াহাটির ফ্যান্সি বাজারের কাছে বোমা বিস্ফোরণে অন্তত চারজন আহত হয়েছেন। ব্রহ্মপুত্র নদের কাছে একটি পাঁচিলের ওপরে বোমাটি রাখা ছিল। বিস্ফোরণের সময় আশপাশ দিয়ে যারা হাঁটছিলেন, তারাই আহত হয়েছেন।

এদিকে এই বোমা বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে উলফা-স্বাধীনের কমান্ডার ইন চিফ পরেশ বড়–য়া। গতকাল শনিবার আসামের নিউজ চ্যানেল প্রতিদিন টাইমকে টেলিফোনে জানান, হিন্দু বাংলাদেশিকে নাগরিকত্ব দেয়ার সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে তারা এই হামলা চালিয়েছে। তিনি বলেন, আমি এই বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করছি। কোন নির্দোষ মানুষ আমার লক্ষ্য ছিল না। আমার লক্ষ্য ছিল যারা হিন্দু বাংলাদেশিকে নাগরিকত্ব দিয়ে অসমীয়াদের অস্তিত্ব হুমকির মুখে ফেলে দিতে চায়, সেই সরকারকে হুমকি দেয়া। যাতে তারা এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ৪জন মানুষ আহত হয়েছে। আমি তাদের সুস্থ্যতা কামনা করি।

এই বোমা বিস্ফোরণের উদ্দেশ্য হিসেবে বর্ণনা করে পরেশ বড়ুয়া বলেন, আসামবিরোধীরা যাতে হিন্দু বাংলাদেশিকে নাগরিকত্ব দিতে সাহস না করে সেই জন্যই এই বোমা হামলা চালানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার আসাম রাজ্য বিজেপির কার্যনির্বাহী সভায় হিন্দু বাংলাদেশিদের নাগরিকত্ব দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। ওই সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে বোমা হামলা চালায় উলফা। এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে না আসলে উলফা আরো কঠোর হবে জানিয়ে পরেশ বড়–য়া আরও বলেন, যারা ভাবে উলফা দুর্বল হয়েছে গেছে তাদের উদ্দেশ্যে বলবো- উলফা দুর্বল হয়নি। অসমীয়া জাতিকে ধংস করে বহিরাগতদের সংস্থাপনের বিরুদ্ধে আমার সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে। আমি পরবর্তী সময়ে আরও কঠোর হবো।

পরেশ বড়ুয়া বলেন, হিন্দু বাংলাদেশিদের পক্ষে অবস্থান করা সব দল ও সংগঠনকে আমি আগে সতর্ক করেছি এখনও করছি। কোনভাবেই হিন্দু বাংলাদেশিদের আসামে স্থান দেওয়া হবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ