প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তুরস্ক থেকে মুক্তি পেয়ে যুক্তরাষ্ট্র ফিরেছেন যাজক অ্যান্ড্রু ব্রনসন

নূর মাজিদ : ২০১৬ সালে তুরস্কের রাষ্ট্রপতি এরদোগানের সরকারকে উৎখাতের ষড়যন্ত্রে জরিত থাকার অভিযোগে আটককৃত মার্কিন যাজক অ্যান্ড্রু ব্রনসনকে মুক্তি দিয়েছে তুরস্ক। ইতোপূর্বে তাকে তিন বছরের কারাদন্ড দিয়েছিল তুরস্কের একটি আদালত। তবে ব্রনসন তার নির্ধারিত সাজা আটক থাকাকালীন সময়েই কাটিয়েছেন এই যুক্তিতে তাকে মুক্তি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরবার অনুমতি দেন তুরস্কের আদালত। এসময় আদালত তার বিরুদ্ধে আনা গুপ্তচরবৃত্তির অন্যান্য অভিযোগও প্রত্যাহার করে নেন। মুক্তি পাবার পরই তুরস্কের ইজমিরে থেকে একটি সামরিক বিমানে করে জার্মানির রামস্টেইনে অবস্থিত মার্কিন বিমানঘাঁটির উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন ব্রনসন। এরপর সেখান থেকেই তিনি যুক্তরাষ্ট্রে ফিরবেন।

এদিকে ব্রনসনের মুক্তিকে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রনীতির বিজয় বলে উল্লেখ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রা¤প। তিনি আশা প্রকাশ করেন যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে পা দিয়েই ব্রনসন প্রথমেই তার সঙ্গে দেখা করতে হোয়াইট হাউজে আসবেন।

যাজক ব্রনসনের মুক্তি নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে মার্কিন-তুর্কি সম্পরকের চরম অবনতি হয়েছিল। এসময় তুরস্কের পন্যে বাড়তি শুল্কারোপের পাশাপাশি দেশটির মুদ্রাকে অস্থিতিশীল করতেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভূমিকা রাখে। এছাড়াও তারা তুরস্ককে এফ-৩৫ স্টিলথ লড়াকু বিমান সরবরাহও বন্ধ করে দেয়। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ইস্তাম্বুলে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটে ভিন্ন মতালম্বি সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার প্রেক্ষাপটে ব্রনসনকে মুক্তি দিলো তুরস্ক। মধ্যপ্রাচ্য বিশ্লেষকদের ধারনা সৌদি চাপ মোকাবেলায় মার্কিন সমর্থন আদায় করতেই এই মুহূর্তে ব্রনসনকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিল তুরস্ক। ইতোপূর্বে ওয়াশিংটনের শত আহব্বান সত্ত্বেও তার মুক্তির বিষয়টি আদালতের ওপর নির্ভরশীল বলে উল্লেখ করে তুরস্ক।

এদিকে মুক্তি পাবার পরেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন ব্রনসন। এসময় তিনি বলেন, আজকের দিনটির জন্যই আমি এবং আমার পরিবার প্রার্থনা করছিলাম। আমার পরিবারের সকল সদস্য প্রেসিডেন্ট এবং তার প্রশাসনকে আমার মুক্তির জন্য নিরলস কাজ করে যাওয়ায় আন্তরিক ধন্যবাদ জানায়। তবে তুরস্কের সঙ্গে একটি গোপন চুক্তির পরিপ্রেক্ষিতে ব্রনসনকে মুক্তি দেয়া হয়েছে গণমাধ্যমে প্রকাশিত এমন খবর নাকচ করে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। বিবিসি/ আল জাজিরা

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত