প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিনিয়োগ তথ্যে শুভঙ্করের ফাঁকি

আদম মালেক : দেশী বিদেশী বিনিয়োগ আকর্ষণ করা বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের(বিডা) লক্ষ্য হলেও প্রতিষ্ঠানটির প্রদত্ত তথ্যে স্বচ্ছতা নেই, রয়েছে শুভঙ্করের ফাঁকি। বিডা শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রস্তাবিত বিনিয়োগের প্রাথমিক নিবন্ধনকে আমলে নিলেও এই তথ্যের কার্যকরিতা যাছাই বাছাইয়ে তেমন তৎপরতা নেই। ফলে প্রস্তাবিত বিনিয়োগের ৩৫ শতাংশ কার্যকরহ য় না বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, কোম্পানিগুলো বিনিয়োগের সময় তথ্য জানানোর ব্যাপারে চুক্তিবদ্ধ থাকলেও পরে অনেক কোম্পানী এসব তথ্য জানায় না । কোনো কোনো কোম্পানি উৎপাদনে যাওয়ার ৬ মাস পর পর তথ্য জানানোর কথা থাকলেও তারা সেটা করে না। পরে মাঠ পর্যায়ে নমুনা সংগ্রহ করে গড়পড়তা তথ্য প্রকাশ করা হয় যা অনেকটা অনুমাননির্ভর। ফলে বিনিয়োগকারীরা অনেকটাই বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণের বাইরে থেকে যায়। নিবন্ধন নেওয়ার মধ্যেই বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের কর্মকান্ড সীমাবদ্ধ।

এ প্রসঙ্গে বিডার উপ-পরিচালক মনজুরুল হক বলেন, সব কোম্পানী বিনিয়োগ সম্পর্কিত তথ্য প্রকাশ করে না। এজন্য অনেকটা অনুমাননির্ভর তথ্য প্রকাশ করে বিডা।

আরেকটি সূত্র জানায়, স্থানীয় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিডার কাছে প্রকৃত তথ্য নেই। তবে স্থানীয় প্রস্তাবিত বিনিয়োগের আনুমানিক শতকরা ৬৫ ভাগ বিনিয়োগ বাস্তবায়ন হয় বাকীটা বাস্তবায়ন হয় না।

বিডার তথ্যানুযায়ী, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে মোট ২৫ হাজার ৬৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের জন্য নিবন্ধন হয়েছে। নিবন্ধনে প্রকল্প ছিল ১ হাজার ৬৪৩টি। আর কর্মসংস্থান হওয়ার কথা ২ লাখ ৮৭ হাজার ৫৪৬টি। এর মধ্যে স্থানীয় বিনিয়োগ প্রস্তাব ছিল ১ হাজার ৪৮৩টি। এসব প্রকল্পের বিপরীতে প্রস্তাবিত বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল ১৫ হাজার ৩৩৩.৭৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। স্থানীয় এসব প্রকল্পে কর্মসংস্থান হওয়ার কথা ২ লাখ ৬০ হাজার ৫৫৫ জনের। আর বিদেশি ১৬০টি প্রকল্পের বিপরীতে ১০ হাজার ৩১৬ দশমিক ২৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করার জন্য নিবন্ধন করা হয়।

তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১৪-১৫ অর্থবছর থেকে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে স্থানীয় নিবন্ধনের ক্ষেত্রে বড় ধরনের ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে। আগে যেখানে প্রস্তাবিত বিনিয়োগের পরিমাণ ৭ হাজার মিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও কম ছিল, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে তা ১২ হাজার মিলিয়ন ডলারের কাছাকাছি পৌঁছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বিনিয়োগ ১২ হাজার মিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যায়। পরের অর্থবছর এই বিনিয়োগের আকার আরও বড় হয়। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে স্থানীয় বিনিয়োগ ১৫ হাজার ৩৩৩.৭৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ