Skip to main content

অধিকারলঙ্ঘনকারী দেশগুলোই জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের সদস্য: হিউম্যান রাইটস ওয়াচ

লিহান লিমা: জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের নতুন ১৮ সদস্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোষ্ঠি ও অধিকারকর্মীরা। ২০০৬ সালের পর এই প্রথমবারের মত প্রতিদ্বন্দ্বীতাহীন দেশগুলোর সদস্য হওয়ার সুযোগ পায়। শুক্রবার নিউইয়র্কে ৪৭ সদস্যের এই কাউন্সিলে ৫টি অঞ্চল থেকে নতুন ৮ সদস্য আগামী ৩ বছরের জন্য নির্বাচিত হয়। নতুন এই সদস্য দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য সমালোচিত হওয়া ফিলিপাইন, বাহরাইন, ইরিত্রিয়া ও ক্যামেরুন। হিউম্যান রাইটস ওয়াচের জাতিসংঘ নির্বাহী লুইস কারবোনেও বলেন, ‘প্রতিযোগিতাহীন এই নির্বাচনে ফিলিপাইন, ইরিত্রিয়া, বাহরাইন ও ক্যামেরুন ২০১৯-২১ সালের সদস্যপদের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। এই ধরনের ভোট নির্বাচনের নামে উপহাস ছাড়া আর কিছুই নয়।’ জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের এই কাউন্সিল ছাড়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। এর মান দিন দিন নীচে নামছে। আবারো মানবাধিকারে সর্বনি¤œ অবস্থানে থাকা দেশগুলো সদস্য হলো।’ অধিকারকর্মীরা জানান, ২০১৬ সালের জুলাই থেকে দেশটির প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তের মাদকবিরোধী যুদ্ধে নিহত হয়েছে ১২ হাজারের মত ব্যক্তি । অন্যদিকে ইরিত্রিয়া বিশ্বের অন্যতম স্বৈরাচারী রাষ্ট্র, সেনাশাসিত এই দেশটিতে নাগরিকরা জোরপূর্বক শ্রম ও দাসত্বের শিকার হচ্ছেন, দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন হাজারো নাগরিক। বাহরাইনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। দেশটির মানবাধিকার কর্মী নাবিল রাজিব সরকারের সমালোচনা করায় ২০১১ সাল থেকে কারাবন্দী আছেন। ক্যামেরুনের নিরাপত্তা বাহিনী দেশটির অ্যাংলোফোন ধর্মীয়দের ওপর দীর্ঘদিন ধরে নিপীড়ন চালিয়ে আসছে। এছাড়া বর্তমান সদস্য দেশ সৌদিআরব, মিশর ও কিউবার বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। বিবিসি, ডিডব্লিউ

অন্যান্য সংবাদ