প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যৌন হয়রানির শিকার হওয়া নারীদের বিদ্রুপ করায় ট্রাম্পের তীব্র সমালোচনা আমাল ক্লুনির

লিহান লিমা: ব্রিটিশ রাজকন্যা প্রিন্সেস ইউজিনির রাজকীয় বিয়েতে যোগ না দিয়ে শুক্রবার পেনসেলভেনিয়ার নারী সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন মানবাধিকার বিষয়ক আইনজীবী আমাল ক্লুনি। এই সময় মার্কিন বিচারক ব্রেট কাভানফের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ আনা অধ্যাপক ক্রিস্টিনি ব্লেসি ফোর্ডের পাশে দাঁড়ান ক্লুনি। নারীদের হয়রানি করায় সমালোচনা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের।

এই সম্মেলনে প্রায় ১২ হাজার নারী অংশ নেন। এর মধ্যে ছিলেন টেনিস কিংবদন্তী সেরেনা উইলিয়াম, কমোডিয়ান মেসুন জায়িদের মত নারীরা। আমাল ও জর্জ ক্লুনি রাজকীয় বিয়েতে নিমন্ত্রিত থাকলেও সম্মেলনে অংশ নেয়ায় সেখানে যেতে পারেন নি। সম্মেলনে নিজের ভাষণের সময় জর্জ ক্লুনি বলেন, ‘হাই, আমি মি. আমাল ক্লুনি।’

সম্মেলনে আমাল ক্লুনি বলেন, যে কোন দেশেই যৌন হয়রানির শিকার হওয়া ব্যক্তিরা তাদের হয়রানিকারকের দিকে আঙ্গুল তুলতে পারে ও তাদের সঙ্গে হওয়া অন্যায় ইতিহাসে পাতায় উল্লেখ থাকে। যারা সাহসীকতার সঙ্গে নিজেদের সঙ্গে হওয়া হয়রানি নিয়ে মুখ খোলেন, কোন প্রেসিডেন্টেরই প্রকাশ্যে ওই নারীকে হয়রানি করা উচিত নয়। এই সময় ‘মি টু’ মুভমেন্ট নিয়ে ক্লুনি বলেন, ‘এটি নারীদের অধিকারের জন্য লড়াইয়ের মুহুর্ত। আমি আশাবাদী।’

এর আগে, মামলার শুনানির সময় কাভানভের হয়রানির সম্পর্কে উত্তর দিতে ব্যর্থ হওয়া ফোর্ডের কিছু কিছু প্রশ্নের নকল করে তাকে বিদ্রুপ করেন ট্রাম্প। ডেইলি মেইল

সর্বাধিক পঠিত