প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আ’লীগ নেতার সুপারি চুরি, মাথা ফাটল যুবলীগ সভাপতির

পরিবর্তন ডটকম: পিরাজপুরের ইন্দুরকানীতে সুপারি চুরির অভিযোগে ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতির মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে দলীয় নেতাকর্মীরা। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে উপজলার চন্ডিপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত যুবলীগ নেতার নাম মো. আসাদুল ইসলাম। তিনি বালিপাড়া ইউনিয়নর চন্ডিপুর ৫নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি।

বর্তমানে তিনি পিরাজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

জানা যায়, চন্ডিপুর গ্রামের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক হাওলাদারের সুপারি বাগান থেকে বুধবার রাতে সুপারি চুরি হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে চন্ডিপুর বাজারে চুরি হওয়া সাড়ে ১৩ কুড়ি কাচা সুপারি বিক্রি করতে দেখে মিরাজ নামে যুবককে। পরে ফারুক ও তার ভাতিজা বালিপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য সচিব জিয়াউল হাছান রনি সুপারি বেপারারির কাছ থেকে সুপারি জব্দ করেন। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পান চুরি হওয়া বিক্রিত ওই সুপারির সাথে ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা আসাদুল জড়িত। এ ঘটনা পরে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বরকে জানানো হলে বিকেলে তিনি সালিশ মীমাংসার কথা বলেন।

এদিকে, আসাদুলকে দোষারোপ করলে বৃহস্পতিবার বিকেলে চন্ডিপুর বাজারে ছাত্রলীগ কার্যালয়ের সামনে বসে আসাদুল ও মিরাজ যুবলীগ নেতা রনিকে চড়-থাপ্পড় মারে।

এ ঘটনার জের ধরে আসাদুলের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার দুপুরে আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক তার ভাই বাদশা হাওলাদার ও ভাতিজা রনি আসাদুলকে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেয়। এসময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোস্তফা কামাল হাওলাদার বলেন, সুপারি চুরির অভিযোগের বিষয়টি আমাকে জানানো হয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে সালিশ মীমাংসার আশ্বাস দিলেও পরে নিজেরা কথা কাটাকাটিতে আসাদুলের সাথে ফারুক হাওলাদারের এ মারামারির ঘটনা ঘটে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ