প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অপূর্ব-নাদিয়ার নাটকীয় উপসংহার

নিজস্ব প্রতিবেদক : সম্প্রতি পূজা উপলক্ষে ফ্যাক্টর থ্রি সলিউশন পরিবেশিত সেভেন টিউন এন্টারটেনমেন্ট প্রযোজিত রিফাত আদনান পাপনের গল্পে নির্মাতা নাজমুল রনি নির্মাণ করেন পূজার বিশেষ নাটক নাটকীয় উপসংহার। নাটকটিতে অভিনয় করেছেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব, সালহা খানম নাদিয়া, আফজাল কবির, ইশা, তন্নী, আশরাফুল আলম সোহাগ প্রমূখ।

নাটকের গল্পে দেখা যাবে, কিছুদিন হয়েছে তূর্য, নাবিলার বিয়ে হয়েছে। সদ্য সংসার পেতেছে তারা, নাবিলা টুকটাক করে গুছিয়ে নিচ্ছে সংসার। তূর্য একটা প্রাইভেট কোম্পানিতে জব করে, কর্পোরেট জব। সব ঠিকঠাকই চলছে কিন্তু অসম্ভব চিন্তা নাবিলাকে নিয়ে। কারন আর কিছুই না তূর্য প্রচন্ড পরিমান পসেসিভ মাইন্ডেড। তার মতে “গরীরের ঘরে সুন্দরী মেয়ে জন্ম নেওয়া যেমন পাপ, জামাইয়ের ঘরে সুন্দরী বউ থাকাও তেমন অভিশাপ”। নাবিলা অসম্ভব সুন্দর একটা মেয়ে যে কারনে সব সময় তটস্থ থাকে তূর্য। পসেসিভনেসের জন্য নাবিলা সুশিক্ষিত থাকা সত্বেও তাকে জব করতে দেয় না। এদিকে বাসায় একা রেখে তূর্য অফিসে সারাটাক্ষণ ভয়ে ভয়ে থাকে। নানান উল্টাপাল্টা চিন্তা করে বসে বসে। নাবিলা বিষয়টা বুঝতে পারে কিন্তু এটাকে তূর্যের ভালবাসা ভেবে সহ্য করে যায় কিন্তু দিন দিন এর মাত্রা বাড়তেই থাকে। প্রতিটা পদক্ষেপে সন্দেহের দৃষ্টিতে রাখে তূর্য। একদিন হুট করে তূর্যের সাথে তার কলেজ লাইফের বন্ধু আসিফের দেখা হয়। বহুদিন পরে দেখা। আসিফ খুব মিশুকে টাইপের। কিছুটা গায়ে পড়েই তূর্যের বাসায় দাওয়াত নেয়। আসিফ তার স্ত্রী রুমাকে নিয়ে একরাতে ডিনারের নিমন্ত্রনে আসে। আসিফ খুব আগ্রহ দেখায় নাবিলার প্রতি। নাবিলার রান্না, সৌন্দর্যের প্রশংসায় পঞ্চমুখ আসিফ যা দেখে তূর্য তো জ্বলতে থাকেই পাশ থেকে তার স্ত্রী রুমাও রীতিমতো জ্বলেপুড়ে আগুন হয়ে যায়। তূর্যের চেয়ে কোন অংশে কম যায় না রুমা পসেসিভনেসের দিক থেকে। বাসায় গিয়ে রীতিমতো লংকাকান্ড শুরু করে। রুমার অত্যাচারে অতিষ্ঠ আসিফ সেদিনের পর আরো কয়েকবার আসে তূর্যের বাসায়। নাবিলার সহমর্মিতার আশায় এসে অল্পস্বল্প গল্প করে যায় এবং প্রায়ই সে সময়টাতে তূর্য বাসায় থাকে না। পরবর্তীতে নাবিলার মুখে আসিফের আসার কথা শুনে ভীষণ চিন্তায় বিভোর থাকে। খাল কেটে কুমিড় আনলো শেষমেশ? বউকে বলে যেন আসিফকে আসতে মানা করে, কিন্তু এটা কি আর সম্ভব? নাবিলার মুখে উল্টো কথা শুনে তার সন্দেহের পরিমাণ গাণিতিক হারে বাড়তে থাকে। এসব নিয়ে প্রায়ই ঝগড়া, কথাকাটাকাটি লাগতে থাকে। সন্দেহের জের ধরে তূর্য প্রায়ই অফিস ফাঁকি দিয়ে বাসায় চলে আসে নানান অযুহাতে। অতিষ্ট হয়ে উঠে নাবিলার জীবন। রাগ করে একদিন নাবিলা বেড়িয়ে যায় তূর্যের বাসা থেকে। তূর্য তখনো সন্দেহের বশে আসিফকে ফোন দেয়, এদিকে কাকতালীয় ভাবে আসিফকেও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না জানায় রুমা। তবে কি তারা দুজন পালিয়ে গেছে? জানতে হলে অপেক্ষা করতে হবে নাটকটি দেখার জন্য। ১৮ অক্টোবর রাত ১০ টায় এশিয়ান টিভিতে নাটকটি প্রচারিত হবে বলে নির্মাতা রনি জানান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ