প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভোলায় ৩৮ জেলের কারাদণ্ড ও ৪ জেলেকে জরিমানা

জুয়েল সাহা, ভোলা : নিষেধাজ্ঞা অমন্যা করে ভোলার ৪ উপজেলার মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীতে মা ইলিশ শিকার করায় ৪২ জন জেলেকে আটক করা হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে ৭০ কেজি মা ইলিশ ও ১৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়।

পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ৩৮ জনকে এক বছর করে করাদ- ও ৪ জনকে ৫ হাজার টাকা করে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভোলা সদর উপজেলার আটককৃত জেলেরা হলেন, সদরের ইলিশা এলাকার লোকমান (৩০), জসিম (৩৫), জামাল (২৮), ইদ্রিস (৪০), আব্দুল হালিম (৫০), জুন্নু মাঝি (৩৯), নুরে আলম (৩২), ইউসুফ (৩৬), নাছির (২৬), আলমগীর (৩৭), মাজিবুল (৩৩) ও রাজাপুরের রিয়াজ (২৫), তালজিল (২২), মাসুদ (৩০), অরুন মাতাব্বর (৪৫), স্বপন (৪০), জাকির (৪৫), কামাল (৫০), ইসমাইল (০৮), শাহিন (০৯), পাভেজ (১০), শাকিল (০৯)। এছাড়াও বোরহানউদ্দিন উপজেলা থেকে আটককৃত জেলেরা হলেন, দুলাল (৫৪), আব্দুল কালাম (৫৫) ও রুহুল আমিন (২৪)। তবে লালমোহন ও চরফ্যাশন উপজেলা থেকে আটককৃত জেলেদের নাম পাওয়া যায়নি।

ভোলা জেলা মৎস্য অফিস সূত্র জানায়, শুক্রবার ভোর রাত থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মৎস্য বিভাগ, কোস্টগার্ড ও নৌ পুলিশ সদস্যরা পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে ভোলা সদর থেকে ২২ জন, বোরহানউদ্দিন থেকে ৩ জন, দৌলতখান থেকে ১১ জন ও লালমোহন থেকে ৫ জন ও চরফ্যাশন থেকে ১ জন জেলেকে আটক করে।

পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ৩৮ জন জেলেকে ১ বছর করে কারাদ- ও বাকী ৪ জন জেলের বয়স কম হওয়ায় তাদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে জড়িমানা করা হয়। এছাড়াও জব্দকৃত জাল আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়। জব্দকৃত মাছ দুস্থদের মাঝে বিতরন করা হয়।

ভোলা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আহ্সান হাসিব খান, ভোলার সাত উপজেলার মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীতে উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, কোস্টগার্ড, নৌ পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে মৎস্য বিভাগ পৃথক পৃথক অভিযান পরিচালনা করে আসছে। কোন প্রকার কাউকে ছাড় দেওয়া হচ্ছে না। মা ইলিশ যাতে ডিম ছাড়তে পারে সেজন্য আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, ৭ থেকে ২৮ অক্টোবর ইলিশ প্রজনন মৌসুম হওয়ায় নদীতে ইলিশ ধরা, বিক্রি ও পরিবহন করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে সরকার।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত