Skip to main content

খুবিতে ছাত্র-বহিরাগত সংঘর্ষ

শরীফা খাতুন শিউলী, খুলনা : খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি)খানজাহান আলী (খাজা) হলের সামনের মাঠে সিনিয়র ডিভিশন লীগ-২০১৮ খেলা চলাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের সাথে বহিরাগতদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটে। সংঘর্ষে দুই পক্ষের ১৩ জন আহত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় এসব ঘটনার পর ছাত্ররা বহিরাগত তিনজনকে হলে আটকে রেখেছে। ঘটনাস্থলে ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা বিক্ষুব্ধ হয়ে খাজা হলের সম্মূখের গেটে ৩টা মটরবাইক আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে। জানা যায়, স্লেজিং করাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে। ঘটনার পর পরই খেলা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল লীগ-বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ১২ই অক্টোবর থেকে ২০শে অক্টোবর পর্যন্ত চুক্তিভিত্তিক মাঠ ব্যাবহারের অনুমতি নেয়। বিকেলে খেলা শুরুর আগে মটরসাইকেল শোডাউন দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় গেটে বহিরাগতরা প্রধান ফটক দিয়ে ঢোকার চেষ্টা করলে প্রথমে বাধার সৃষ্টি করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক পরিচালক ড. শরীফ হাসান লিমন জানান, বিকেলে খুলনা জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের খাজা হলের সামনের মাঠে সিনিয়র ডিভিশন ফুটবলের খেলা শুরু হয়। উদয়ন ক্লাব ও আলীর ক্লাবের মধ্যে খেলা শুরু হয়। এসময় বহিরাগতরা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের এক ছাত্রকে মাঠে স্লেজিং করলে, খেলা চলাকালীন সময় খেলোয়াড়েরা মাঠ থেকে ধাওয়া দিয়ে খাজা গেটে নিয়ে যায়, এসময় ছাত্ররা উত্তেজিত হয়ে বাধা দিতে গেলে দুইপক্ষের সংঘর্ষ বাধে। তিনি আরও জানান, ঘটনার খবর পেয়ে খাজা হলের ছাত্রদের নিবৃত্ত করে তাদের সাথে আলোচনা করা হচ্ছে। বহিরাগত তিনজনকে প্রশাসনের হাতে তুলে দেয়া হবে।