প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার দর্শন থেকে তরুণ প্রজন্মকে শিক্ষা নিতে হবে: স্পিকার

আসাদুজ্জামান সম্রাট : জাতীয় সংসদের স্পিকার ড.শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দর্শনকে ধারণ করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ অর্থাৎ শোষণ ও বৈষম্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে তিনি নিরলসভাবে অবিচল কাজ করে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর ন্যায় তিনিও অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেন না। দারিদ্যমুক্ত বাংলাদেশ তথা অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে দেশ গড়তে তার নেতৃত্ব অতুলনীয়। বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দর্শনকে ধারণ করে তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে যেতে হবে—তবেই প্রতিষ্ঠিত হবে সোনার বাংলা।

তিনি শুক্রবার বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে হাসুমনির পাঠশালা আয়োজিত দেশরত্ন শেখ হাসিনার ৭১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে চিত্রাংকন কর্মশালায় আঁকা ৭১টি প্রতিকৃতি ও জামালপুরের ঐতিহ্যবাহী সূচিশিল্প প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন।

স্পিকার বলেন, গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাহসী সুযোগ্য কন্যাদু:খী মেহনতি মানুষের মুক্তিদূত হিসেবেজনগণের কাছে আদর্শ ও অনুপ্রেরণার প্রতীক হয়ে আছেন তিনি। জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ, বঙ্গবন্ধু আত্মস্বীকৃত খুনীদের বিচার, পার্বত্য চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক শান্তি চুক্তি সম্পাদন,ছিটমহলসমস্যারসমাধান, একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি, ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণসহ জাতীয় জীবনের বহুক্ষেত্রে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছেন তিনি।

ড. শিরীন শারমিন বলেন, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার বড় অংশ নারী। সর্বস্তরে নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করণে বর্তমান সরকার বদ্ধ পরিকর। নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বিশ্বের কাছে অনন্য নজির উল্লেখ করে তিনি বলেন, সব ক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার জন্য বর্তমান সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। তরুণরাই আগামীর ভবিষ্যৎ উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার তরূণ প্রজন্মকে দক্ষ ও যোগ্য করে গড়ে তুলতে নানা কর্মসূচি নিয়েছে।

হাসুমনির পাঠশালার আয়োজনকে সময়োপযোগী উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশ রত্ম প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন এমনই হওয়া উচিৎ। এটা তরুণ প্রজন্মকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর ভিশন বা স্বপ্ন সম্পর্কে জানার এক অপূর্ব সুযোগ তৈরী করে দিয়েছে। তিনি বলেন, জামালপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চলের নারীদের সূচিকর্ম এ প্রদর্শনীতে এসেছে—যা ঐ অঞ্চলের নারীর ক্ষমতায়নের স্বাক্ষর রাখে।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও হাসুমনির পাঠশালা’র সভাপতি মারুফা আক্তার পপি এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বরেণ্য শিল্পী সমরজিৎ রায় চৌধুরী ও বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক মো. মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের সচিব শওকত নবী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন হাসুমনির পাঠশালা’র জোনায়েদ হালিম। পরে স্পিকার অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন এবং প্রদর্শনী স্থল ঘুরে দেখেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ