Skip to main content

দলের ভাগ্য ফেরাতে স্টেডিয়ামের মধ্যেই মন্দির

স্পোর্টস ডেস্ক : জীবনের যে কোনও ক্ষেত্রে ঈশ্বর বা আল্লার প্রতি ভক্তি প্রদর্শন করে থাকি আমরা। খেলোয়াড়রাও এর ব্যক্তিক্রম নন। বাইশ গজে ভারতের ভাগ্য ফেরাতে স্টেডিয়ামের মধ্যে তৈরি হয়েছে মন্দির। তাও আবার নিজামের শহর হায়দরাবাদে। উপলের রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সাত বছর আগেই তৈরি হয়েছে মন্দির। তার পর থেকে বদলে গিয়েছে টিম ইন্ডিয়ার ভাগ্য। উপলে শুক্রবার শুরু হয়েছে ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজের দ্বিতীয় তথা শেষ টেস্ট। সাধারণ দিনে স্টেডিয়ামের ভিতরে এই মন্দির সম্ভবত দৃষ্টির অগোচরে থাকে। কিন্তু ম্যাচের দিন তা আলাদা মাত্রা পায়। উপল স্টেডিয়ামের ভিতরে এই মন্দিরের গল্প সম্পর্কে পুরোহিত হনুমন্ত শর্মা বলেন, ২০১১ সালে এই মন্দিরটা তৈরি হয়। এর আগে এই মাঠে ভারত এবং স্থানীয় আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি ডেকান চার্জার্স (তৎথকালিন আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি) উপলে কোনও ম্যাচ জেতেনি। তখন মাঠ ঘরোটা টিমের কাছে অপয়া ছিল। তখন আমরা বুঝতে পারি মাঠের বাস্তুদোষ রয়েছে। আর তা কাটাতেই মাঠে গণেশের ( পুরাণ মতে, বাস্তু শাস্ত্রের দেবতা হলেন গণেশ) মন্দির তৈরি করা হয়। তার পর থেকে এই মাঠে ভারত কোনও দিন হারেনি। এই মাঠে ভারত প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিল ২০০৫ সালে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ওয়ান ডে ম্যাচে ভারত হেরেছিল ৫ উইকেটে। তার পর অস্ট্রেলিয়ার কাছে ২০০৭ এবং ২০০৯ হেরেছি। উপলে ভারত প্রথম জয় পায় ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১৪ অক্টোবর, ২০১১। ভারত হারিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে। দ্বীপরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ছ’ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় ভারত। কলকাতা-২৪