প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২০৫০ সালের মধ্যে দারিদ্রের সংখ্যা অর্ধেকে নামিয়ে আনতে চায় বিশ্বব্যাংক

সোহেল রহমান, বালি থেকে: আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে বিদ্যমান দারিদ্রের সংখ্যা অর্ধেকে নামিয়ে আনতে চায় বিশ্বব্যাংক। এ লক্ষ্যে জনগণের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সামাজিক নিরাপত্তা ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতে জোর দিতে সদস্য দেশগুলোর সরকারের প্রতি জোরালো আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

শুক্রবার সকালে ইন্দোনেশিয়ার বালি’র নুসা দুয়া কনভেনশন সেন্টারে বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফ-এর তিনদিনব্যাপী বার্ষিক সভা উদ্বোধনকালে এ আহবান জানান বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতি জোকো উইদোদো।

জিম ইয়ং কিম বলেন, গত ২৫ বছরে বিশ্বে অতি দরিদ্র মানুষের সংখ্যা ১০০ কোটির বেশি কমেছে। এটা উল্লেযোগ্য হলেও বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ৭৪ কোটি মানুষ চরম দারিদ্রের মধ্যে বসবাস করে। তাদের দৈনিক আয় ১ দশমিক ৯০ ডলারেরও কম। এছাড়া বিশ্বের এক-চতুর্থাংশ জনগণ দিনে ৩ ডলারের কম আয় করে যা নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে দারিদ্রের স্তর। আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে বিদ্যমান দারিদ্রের সংখ্যা অর্ধেকে নামিয়ে আনতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সামাজিক নিরাপত্তা ও তথ্য প্রযুক্তি খাতে জোর দেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইএমএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিষ্টিনা লাজার্ড বলেন, গত ৭০ বছরে সারাবিশ্বে যে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধি হয়েছে তা অভূতপূর্ব। কিন্তু বিশ্ব অর্থনীতিতে সাম্প্রতিক কিছু নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া এবং বাণিজ্য নিয়ে যে উত্তেজনা চলছে (যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের চলমান বাণিজ্য যুদ্ধ) এটা বন্ধ না হলে বিশ্ব অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি আগামী দুই বছরে ১ শতাংশ কমে যেতে পারে।

ইন্দোনেশিয়ার সোলায়সী দ্বীপে সাম্প্রতিক সুনামীতে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হয়। বিশ্বের ১৮৯টি দেশের অর্থমন্ত্রী, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ও সরকারি-বেসরকারি খাতের প্রতিনিধিরা এ বার্ষিক সভায় অংশগ্রহণ করছেন।
বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের নেতৃত্বে ২৭ সদস্যের একটি প্রতিনিদিল বর্তমানে বালিতে অবস্থান করছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত