প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘রাজনীতিকে হত্যার জন্যই ২১ আগষ্টের গ্রেনেড হামলা’

ফারজানা স্মৃতি : ২১ আগষ্টের গ্রেনেড হামলা নিয়ে দৈনিক আমাদের নতুন সময়’র সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান বলেছেন,  ‘এখানে একটা রাজনীতিকে হত্যা করার জন্যই মূলত হামলাটি করা হয়েছে। এটা নির্দিষ্টভাবেই উচ্চ পর্যায়ের রাজনীতি। এখানে তারা দল হিসেবে বেকায়দায় এবং তারা জানে তারা অপরাধী কিন্তু সেটাকে বুঝেও না বোঝার ভান করছে। বিএনপি একটা দল হিসেবে মুক্তি পেতে পারে কিন্তু সেটা তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়ে নয়। সুতরাং উনাদের এই বক্তব্যকে খুব গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ইস্যু হিসেবে বিচার করা যায় না। ’

বৃহস্পতিবার চ্যানেল ২৪’র টকশো অনুষ্ঠান মুক্তবাকে অংশ নিয়ে নাঈমুল ইসলাম খান এসব কথা বলেন। এসময় সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আরাফাত, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব গোলাম কুদ্দুস উপস্থিত ছিলেন।

নাঈমুল ইসলাম খান বলেন, ২১ আগস্ট হামলার পর, আমাদের দৈনিক আমাদের সময়’র তিনটি রিপোর্টের মধ্যে একটি ছিল, আজহার আলী সরকারের। প্রতিবেদনটিতে বাবর সহ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তার মধ্যপ্রাচ্যের একটা গুপ্ত সংস্থার ভিডিও সিডি দেখার অভিযোগ মেলে। আরও একটি রিপোর্ট ২১ আগস্ট ঘটনার পরবর্তী সময় নিয়ে বিভিন্ন পর্যায়ে দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের পুরস্কারের খবর প্রকাশিত হয়। যেখানে ঘটনাস্থলে আহতদের নিয়ে বর্বরতা সত্ত্বেও ৫৪ কর্মকর্তাদের শাস্তির বদলে পুরস্কৃত করা হয়। আহতদের ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা না দেয়া, ঘটনাস্থল থেকে অ্যাম্বুলেন্স ফিরিয়ে দেয়া এই যে অরাজকতা- সেটা সত্ত্বেও তারা পুরস্কৃত হয়েছিল। শুধু তাই নয়, পঁচাত্তরের ঘাতক যারা-তাদেরকেও পুরস্কৃত করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ আরাফাত বলেন, একাত্তরের ঘাতক, পঁচাত্তরের ঘাতকদের সকলকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। এটার কারণ একটাই, এরা রসুনের কোয়া থেকে বিভিন্ন ব্রাঞ্চ বের হয়ে বিভিন্ন চেহারায় রূপান্তরিত হয় । একটা জঙ্গিবাদ এর মধ্যে রাজাকার আছে যারা বঙ্গবন্ধুর ঘাতক এর মধ্যে শুদ্ধ প্রতিচ্ছবি হচ্ছে বিএনপি। কিছু মানুষকে বিভ্রান্ত করে পপুলার সাপোর্টটা তারা পাচ্ছে। যেখানে জঙ্গি বা জামায়াত এই সুযোগটা পাবে না। যারা এই রাজনীতিকে নিজের মত মনে করে তারা বিএনপি-আওয়ামী লীগকে এক পাল্লায় মাপেন। যদি বলি এ থেকে আমরা সুষ্ঠু বিচার পাচ্ছি এটা এতটা সহজ নয়।  চ্যানেল২৪

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত