প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ধনীদের ভিসা দিয়ে অপরাধের দরজা খুলে রেখেছে ইইউ: ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল

লিহান লিমা: ধনীদের ভিসা ও পাসপোর্ট দিয়ে ইউরোপিয় ইউনিয়ন অপরাধীদের জন্য দ্বার উন্মুক্ত করে রেখেছে বলে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যশনাল ও গ্লোবাল উইটনেসের এক যৌথ প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত এক দশকে ইইউ’র দেশগুলো প্রায় ১ লাখ নতুন অধিবাসী গ্রহণ করেছে ও ৬ হাজার জনকে নাগরিকত্ব দিয়েছে। তারা জানায়, ৪ টি ইইউ সদস্যদেশ টাকার বিনিময়ে পাসপোর্ট ও ১২টি দেশ বিদেশি বিনিয়োগকারিদের বসবাসের অধিকার দেয় । বিনিয়োগের শর্তে ভিসা ও পাসপোর্ট প্রদানের এই নীতির ফলে সরকার জানে না কাকে তা প্রদান করছে। এর মধ্যে স্পেন, হাঙ্গেরি, লাটভিয়া, পর্তুগাল ও ব্রিটেন বিনিয়োগকারী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের ‘গোল্ডেন ভিসা’ দিয়ে থাকে।

গ্লোবাল উইটনেসের জ্যেষ্ঠ প্রচারক নাওমি হ্রিস্ট বলেন, ‘তথ্য যাচাই-বাচাইয়ের মাধ্যমেই এই সুবিধা দেয়া উচিত, তাহলে দেশগুলো জানবে তারা কাকে স্বাগত জানাচ্ছে ও তার অর্থের মূল উৎস কি। কিন্তু বর্তমান নীতি দুর্নীতিগ্রস্ত ব্যক্তিকে সুযোগ করে দিয়েছে যে কিনা রাষ্ট্রকেও দুর্নীতির ঝুঁকিতে ফেলতে পারে।’ পর্তুগিজ এমপি ও ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ভাইস-চেয়ার এনা গোমেজ বলেন, ‘এই ধরনের স্কিম অর্থনৈতিকভাবে উপযোগি হলেও এটি অপরাধী গোষ্ঠিকে সহজেই সুযোগ করে দেয়।’ এদিকে এই স্কিম ইইউ’র নিরাপত্তার সঙ্গে আপস করছে এমন অভিযোগ ওঠার পর ইউরোপিয় কমিশন নাগরিকত্ব স্কিম নিয়ে নতুন করে পর্যবেক্ষণের কথা জানিয়েছে। কারণ ইইউর নাগরিকরা খুব সহজেই ইইউভুক্ত দেশগুলোতে যাতায়াত করতে পারেন। গার্ডিয়ান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ