প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাতীয় ঐক্য ডাক দিয়েছি, হুমকিতে কাজ হবে না: বি. চৌধুরী

আহমেদ জাফর: যুক্তফ্রন্ট চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক এ কিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, যদি আবার অপশাসন ফিরে আসে তাহলে দেশের গণতন্ত্রের সর্বনাশ হয়ে যাবে। এজন্য আমরা ঐক্যের ডাক দিয়েছি। কারও কোনো হুমকিতে কাজ হবে না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন করে জনগণকে ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে।

রোববার রাজধানীর বনানী চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে বিকল্পধারা বাংলাদেশ-এর সহযোগী সংগঠন প্রজন্ম বাংলাদেশ আয়োজিত ছাত্র-যুব সমাবেশ ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

বি চৌধুরী বলেন, ক্ষমতার রাজনীতি বন্ধ করুন। নিজেরা যা খুশি বলবেন। অন্যদলের কাউকে কথা বলতে দেবেন না। এ কেমন গণতন্ত্র? এ ধরনের অবস্থা অগণতান্ত্রিক। এটা চলতে পারে না। অতীতে সংবিধান সংশোধন করে কীভাবে নিরপেক্ষ সরকার গঠন করতে হয় তার দৃষ্টান্ত রয়েছে উল্লেখ করে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, আমরা রাতে সংসদ ডেকে সংবিধান সংশোধন করেছি।

তিনি দেশের দুর্নীতি ও ব্যাকিং খাতের লুটে-পাটের বিবরণ তুলে ধরে বলেন, এটা কী রকম শাসন করলেন আপনারা? একটা মন্ত্রণালয় দেখাতে পারবেন যেখানে দূর্নীতি নাই, ঘুষ নাই। এতো বড় দূর্নীতিবাজ সরকার আর দেখি নাই। ব্যাংকের টাকা চুরি হয়ে যায়- কেউ কিছু করতে পারে না। তারা বলে উন্নয়ন হয়েছে। হ্যা উন্নয়ন হয়েছে। তবে জনগণের টাকা যে পরিমান চুরি হয়েছে তার অর্ধেক উন্নয়ন হয়েছে।

‘তারা বলে উন্নয়ন দেবো গণতন্ত্র দেবো না। এটা কী? গণতন্ত্রের কবর রচনা করে উন্নয়ন নয়। উন্নয়ন ও গণতন্ত্র এক সাথে চলতে হবে। উন্নয়নও হবে গণতন্ত্রও থাকবে। এটা ব্রিটিশ আমল নয়, পাকিস্তান আমল নয় যে আপনারা ক্ষমতা দেখাবেন। শুধ মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী নয়- ইউনিয়ন নেতাদের ক্ষমতার দাপটে মানুষ অসহায়। এসব তারা সহ্য করা হবে না।’

বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, এদেশ থেকে চিরতরে দুর্নীতি বিদায় করে দেয়া হবে। আর ভোট ছিনিয়ে নেয়ার পরিস্থিতি হবে না। কারণ তরুণ সমাজ জেগে উঠেছে। এ সরকার জনগণের ঐক্যের বিরুদ্ধে দাড়িয়েছে। তারা বলছে ঐক্য হতে দেওয়া যাবে না। মানে কী? আপনারা প্রতিরোধ করবেন? এটা সরকারের ভাষা? রাষ্ট্রের ভাষা? আমরা আপনাদের কথা ফেরৎ দিলাম। আর কখনো এ ভাষায় কথা বলবেন না।

সরকার প্রশাসনকে দলীয়করণ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় প্রশাসনকে নিরপেক্ষ থাকার আহবান জানাচ্ছি। আমরা আপনারা সবাই এদেশের সন্তান। কোন ধরণের ভয়ভীতির মধ্যে থাকবেন না। কেউ দালালি করবেন না। দালালদের এদেশ থেকে চিরতরে উচ্ছেদ করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত