প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

যে রাস্তায় খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেওয়া হয়েছে শেখ হাসিনাকে সে রাস্তায় নেয়া হবে : বুলু

সাব্বির আহমেদ: যে রাস্তায় খালেদা জিয়াকে নাজিমুদ্দিন রোডে নেয়া হয়েছে সে রোডে শেখ হাসিনাকে কারাগারে নেওয়া হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লা বুলু।

রোববার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির জনসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

এর আগে জনসভার সভাপতি ও দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম অালমগীরের অনুমতিক্রমে জনসভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। বেলা দুইটায় আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হলেও দুপুর ১২টা থেকে জনসভাস্থলে ছোট ছোট মিছিল নিয়ে বিএনপির নেতা-কর্মীরা আসতে শুরু করেন। বেলা দুইটা পর্যন্ত কয়েক হাজার নেতা-কর্মী সেখানে জড়ো হয়েছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দী দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে প্রধান অতিথি রেখেই রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভার কার্যক্রম শুরু করে বিএনপি। সভা শুরুর পর থেকে বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের নেতারা বক্তব্য দিচ্ছেন।

দলীয় কর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং ‘নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার’ গঠনসহ বিভিন্ন দাবিতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির এই জনসভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এর আগে সমাবেশে অংশ নিতে বেলা ১১টার আগে থেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসতে শুরু করেন বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিল সহকারে সোহরাওয়ার্দীতে জড়ো হন তারা। বিএনপির নেতাকর্মীদের সমাগমে পুরো সোহরাওয়ার্দী উদ্যান লোকে লোকারণ্য হয়ে পড়েছে।

এ সময় নেতাকর্মীদের হাতে নানা রঙ-বেরঙের ও স্লোগান লেখা ব্যানার-ফেস্টুন-প্ল্যাকার্ড শোভা পায়। এসব ব্যানারে খালেদা জিয়াসহ সারা দেশের নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি করা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে শুরু হওয়া জনসভায় প্রধান বক্তা থাকবেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

এ ছাড়া স্থায়ী কমিটির অন্যান্য সদস্য, ভাইস চেয়ারম্যান, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, যুগ্ম মহাসচিব, সম্পাদকমণ্ডলীসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতারা বক্তব্য দেবেন।

জনসভায় সাত দফা দাবি ও ১২টি লক্ষ্য’র কথা বিএনপি ঘোষণা করবে বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে।

এদিকে বিএনপির জনসভাকে ঘিরে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। রাখা হয়েছে পুলিশের প্রিজনভ্যান, এপিসি, রায়ট কারসহ সাজোয়া যান। সতর্ক দৃষ্টি রাখছেন বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা।

পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, জনগণের চলাচলে ও জানমালের ক্ষতি হয় এমন কোনো কাজ যাতে কেউ করতে না পারে, সেজন্য জনসভা ঘিরে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত