প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা
অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা বোর্ড পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না

হ্যাপি আক্তার : নির্বাচনি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হলেও মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা যায়, এমন অভিযোগ দীর্ঘদিনের। এই দুর্নীতি ঠেকাতে এবার কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নির্বাচনি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হলে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না শিক্ষার্থীরা এমন সিদ্ধান্তই নিয়েছে শিক্ষা বোর্ড। আগামী পরীক্ষাতেই কার্যকর হচ্ছে এই সিদ্ধান্ত।
শিক্ষা বোর্ডের এমন সিদ্ধান্তকে কেন্দ্র করে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যাতে কোনো ছাত্র-ছাত্রীকে জিম্মি না করতে পারে তা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছেন অভিভাবকরা।

এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরই বোর্ড পরীক্ষায় অংশ নেয়। তবে, অনেক ক্ষেত্রে অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ করে দেয়া হয় আর্থিক সুবিধার বিনিময়ে এমন অভিযোগও আছে। অনেক ছাত্র-ছাত্রী প্রতিষ্ঠান পরিবর্তন করে অন্য প্রতিষ্ঠানে ভর্তি দেখিয়ে অবৈধভাবে পরীক্ষায় অংশ নেয়।

এ ধরণের অনিয়ম বন্ধ করতে সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা বোর্ড। এ বছর নির্বাচনি পরীক্ষায় ফেল করা শিক্ষার্থীরা ওই বছরের বোর্ড পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না। এরই মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো শুরু করেছে বোর্ড।
আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সমন্বয়ক অধ্যাপক জিয়াউর হক বলেছেন, টেস্ট পরীক্ষার জন্য যে প্রশ্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো তৈরি করছে সে প্রশ্নগুলো মানসম্মত কিনা। অথবা যে পরীক্ষাগুলো হবে সেগুলোর আধুনিক পরীক্ষার প্রস্তুতি হচ্ছে কিনা, সে বিষয়গুলোও দেখা হবে।

অভিভাবকদের অভিযোগ, অনেক প্রতিষ্ঠান অতিরিক্ত অর্থ আদায়ে ইচ্ছা করে শিক্ষার্থীদের পাস করায় না। এ ধরনের অনিয়মের বিষয়ে নজরদারির আহ্বান তাদের।

অভিভাক ঐক্য ফোরামের সভাপতি জিয়াউল হক দুলু বলেন, পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক যেন স্বেচ্ছচারিতা করতে না পারে, সে দিকে সরকারকে শর্তক থাকতে হবে। তার সাথে মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, অনেক সময় প্রভাবশালীদের চাপে ফেল করা শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় অংশ নেয়ার অনুমতি দিতে হয়। তাই নতুন সিদ্ধান্ত সবাইকে জানানোর আহ্বান তাদের।

রহমতউল্লাহ মডেল কলেজের অধ্যক্ষ আবুল বাশার হাওলাদার বলেছেন, অনেক সময় প্রভাবশালীদের চাপে পড়ে অনুত্তীর্র্ণ শিক্ষার্থীকে পরীক্ষা কেন্দ্রে পাঠাতে বাধ্য হই। সরকার যে নতুন সিদ্ধান্তটি নিয়েছে, এই বিষয়টি সকলকে জানাতে হবে।

এখন থেকে নির্বাচনি পরীক্ষার ফলাফলও সংশ্লিষ্ট বোর্ডে জমা দিতে হবে। কোন পুনঃনির্বাচনি পরীক্ষাও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিতে পারবে না বলে জানিয়েছে শিক্ষা বোর্ড। এজন্য এবছর এসএসসি’র টেস্ট পরীক্ষার ফল ৫ নভেম্বরের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত