প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

বাণিজ্যিক বাধা দূর করলে ৩ গুণ বাড়বে দক্ষিণ এশিয়ার আন্তবাণিজ্যের পরিমাণ

লিহান লিমা: ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার বার্ষিক আর্থিক বাণিজ্যের পরিমাণ ২০০ কোটি ডলার। ফিনেন্সিয়াল টাইমসের খবরে বলা হয়, দুই দেশের মধ্যকার কিছু বাণিজ্যিক বাধা দূর করলে দ্বি-পক্ষীয় বাণিজ্যের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ৩ হাজার ২০০ কোটি ডলারে। তেমনি বাণিজ্যের খরচ হ্রাস করলে দক্ষিণ এশিয় দেশগুলোর মধ্যকার বর্তমান বাণিজ্যের পরিমাণ ২ হাজার ৩০০ কোটি ডলারের চাইতে তিনগুণ বাড়তে পারে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর বাণিজ্য নিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের প্রকাশিত প্রতিবেদনে উঠে আসে, দক্ষিণ এশিয় দেশগুলোর আন্ত-বাণিজ্যের পরিমাণ মাত্র ৫ ভাগ, অন্যদিকে পূর্ব এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলে যা ৫০ ভাগ ও সাব-সাহারা আফ্রিকায় ২২ ভাগ। বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়, যেখানে বাণিজ্যিক বাধা বেশি, সেখানে তৃতীয় দেশের মাধ্যমে বা কাস্টম চেক এড়িয়ে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার মোট বাণিজ্যের ৫০ ভাগই অনানুষ্ঠানিক বাণিজ্য ( চোরাচালান, বে-সরকারী খাতের অপ্রদর্শিত আমদানি)। যেমন, নেপালে ভারতের অনানুষ্ঠানিক বাণিজ্যের পরিমাণ আনুষ্ঠানিক বাণিজ্যের সমান, পাকিস্তানের সঙ্গে এটি আনুুষ্ঠানিক বাণিজ্যের ৯১ ভাগ। এবং ভুটানের সঙ্গে ভারতের অনানুষ্ঠানিক বাণিজ্যের পরিমাণ আনুষ্ঠানিক বাণিজ্যের চেয়ে ৩ গুণ বেশি।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে আরো উঠে আসে, অন্য অঞ্চলগুলোর চাইতে দক্ষিণ এশিয়ায় বাণিজ্যের খরচ অনেক বেশি। দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ও উত্তর আমেরিকার দেশগুলোর চাইতে দক্ষিণ এশিয়ার বাণিজ্যিক খরচ ২০ ভাগ বেশি। বিশ্বব্যাংক জানায়, সঠিক বাণিজ্যিক পরিকল্পনা, নীতি-নির্ধারণ ও বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জনের মাধ্যমেই দক্ষিণ এশিয় দেশগুলো বাণিজ্যিক বাধা দূর করতে পারে। ফিনেন্সিয়াল টাইমস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত