প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

৩ বছরে ঢাকায় জমির মূল্য বৃদ্ধি ৩‘শ শতাংশ

রাকিব মুহাম্মদ : গত ৩ দশকে ঢাকায় জমির দাম বেড়েছে ৩শ শতাংশ। বেশি দামের কারণে রাজধানীতে বসবাসরত অনেকেই বাড়ি বা ফ্ল্যাট কিনতে পারছেন না।রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েসন (রিহ্যাব) বলেছে, ঢাকার মোট বাসিন্দার অন্তত অর্ধেক যারা নিজে বাড়ি বা ফ্ল্যাটের মালিক হতে চান।-বিবিসি বাংলা

শুক্রবার বিবিসি বাংলা’র সাথে সাক্ষাৎকারে ঢাকার মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা নুশরাত জাহান বলেন, একটা বাড়ি কেনার কথা তখনই আসে যখন বেতনের অর্ধেকের বেশি টাকা বাসা ভাড়ায় দিয়ে দিতে হয়। যদি একটা ফ্ল্যাট কিনতে পারতাম তাহলে হয়তো এই বোঝাটা থেকে বের হয়ে আসতে পারতাম। সমস্যা হচ্ছে ভরসাটা পাচ্ছি না, কার কাছ থেকে কিনবো।কিন্তু পরর্বতীতে দামটা বেড়ে যাচ্ছে।

জমির দাম বৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে নগরবিদ ও বুয়েটের আরবান ও রিজিওনাল প্ল্যানিং’র অধ্যাপক ইশরাত ইসলাম বলেন, বাড়ির মূল্য নির্ভর করে চাহিদার উপর। ঢাকার ভৌগলিক অবস্থানে পরিকল্পনা অনুযায়ী নতুন জমি বৃদ্ধি করা যাচ্ছে না যে কারণে আসে পাশে যেসব জায়গা আছে বা কৃষি ভরাট করে আবাসনের জন্যে উপযোগী করতে দর বেড়ে যাচ্ছে। গরিব মানুষের কাছ থেকে কম দামে কিনে নিয়ে ডেভেলপ করে সেটা অনেক বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, মার্কেটে ল্যান্ড প্রাইসকে নিয়ন্ত্রণ করার অনেক উপায় আছে তা ব্যবহার হচ্ছে না। জমি অনেক ক্ষেত্রে একটা বিনিয়োগ খাত হয়ে দাঁড়িয়েছে। এদের প্রতিযোগিতার কারণে অনেক সময় জমির দাম বেড়ে যায়।

শুধুমাত্র আবাসিক জায়গার দামই নয় বাণিজ্যিক ব্যবহারের জমি মতিঝিল, মহাখালী যে জায়গাগুলোতে মূলত অফিসপাড়া হিসেবে পরিচিত সেসকল জায়গারও দাম বেড়েছে।

রিহ্যাব বলছে, এইমূহুর্তে ঢাকার বিভিন্ন মাপের ও দামের প্রায় ২০ হাজার ফ্ল্যাট অবিক্রিত অবস্থায় আছে। ক্রেতা থাকা সত্তেও বিক্রি করা হচ্ছে না এ প্রশ্নের জবাবে রিহ্যাবের সভাপতি শামসুল আলামিন বলেন, যদি আমরা কম দামে জমি না পাই তাহলে কিন্তু এ চাহিদা পূরণ করা সম্ভব না। সরকার বরাদ্দ না দিলে তা সম্ভব নয়। সরকার বিভিন্ন ব্যক্তিকে জমি বরাদ্দ দিচ্ছে, যেটা পূর্বাচলে হয়েছে বা অনান্য জায়গায় হয়েছে। ওসব জমি ৩-৪ হাত হয়ে ডেভেলপারের কাছে আসায় মধ্যস্বত্ব ভোক্তারা বড় অংকের মুনাফা এখান থেকে নিয়ে যাচ্ছে। আল্টিমেটলি ডেভেলপাররা যে দামে মিডলক্লাসকে দেওয়ার কথা সে দামে দিতে পারছে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত