প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যৌন কেলেঙ্কারির জন্য বাতিল হল ২০১৮ সালের সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার

লিহান লিমা: বিনোদন জগত ও রাজনৈতিক অঙ্গনের পর এবার মি টু ক্যাম্পেইন কড়া নেড়েছে নোবেল পুরস্কারের দরজায়। ১ অক্টোবর স্টকহোমে বসতে যাওয়া নোবেল সেশনে বিগত ৭০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথমবারের মত থাকছে না সাহিত্য পুরস্কার। অন্যান্য বছরের মতই এবারও ১ অক্টোবই চিকিৎসাবিদ্যায় পুরস্কার ঘোষণা করা হবে। বাকি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার এরপর ঘোষিত হবে।

একাডেমির প্রভাবশালী সাংস্কৃতিক ক্লাবের সদস্য ও ফটোগ্রাফার জেন ক্লদ আরনল্টের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ওঠে। ১৮ নারী তার বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ আনেন। একাডেমির আরেক সদস্য লেখক ক্যাটরিনা ফ্রোস্টেনসনের হাজব্যান্ড তিনি। সুইডিশ একাডেমির অভ্যন্তরীণ তদন্তে উঠে আসে, আরনল্ট যৌন কেলেঙ্কারিতে জড়িত হওয়া ছাড়াও একাডেমির অনেক গোপন তথ্য ফাঁস করেছেন। ২০১১ সালে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগেও তাকে অভিযুক্ত করা হয়। এই ঘটনায় ক্যাটরিনা ফ্রোস্টেনসনসহ আরো ৩ সদস্য পদত্যাগ করেন।

সুইডিশ একাডেমি মে মাসে ২০১৮ সালের সাহিত্যে নোবেল স্থগিত করার কথা জানায়। সুইডিশ একাডেমির স্থায়ী সেক্রেটারি এন্ডার্স অলসন বলেন, ‘জনগণের মাঝে একাডেমি সম্পর্কে আস্থা ফিরিয়ে আনতে সময় লাগবে। ২০১৯ সালে আগামী বছরের বিজয়ীসহ ২০১৮ সালের বিজয়ীর নাম প্রকাশ করা হবে।’

এই কেলেঙ্কারির ঘটনার পরে সুইডিশ সোসাইটির ১০০ সদস্য ‘নিউ একাডেমি প্রাইজ’ কমিটি গঠন করেন। তবে নুতুন পুরস্কার প্রদানের প্রক্রিয়া সুইডিশ একাডেমির মত গোপনীয় নয়। এবার এই তালিকায় উঠে এসেছেন ব্রিটেনের নিল গ্যামেন, জাপানের হারুকি মুরাকামি কানাডিয়ান কিম থাউই এবং ফ্রান্সের লেখক মার্সি কন্ডি। এদিকে মুরাকামি তার নাম প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন। আগামী ১২ অক্টোবর এই ‘নিউ একাডেমি পুরস্কার’ ঘোষণা করা হবে। ন্যাশন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ