প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

যুক্তরাষ্ট্রে ৫৯ ভাগ কিশোর-কিশোরী অনলাইনে হয়রানীর শিকার

রাশিদ রিয়াজ: ১৩ থেকে ১৯ বছর বয়সী ছেলেমেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ‘সাইবারবুলিং’ বা অনলাইনে হয়রানির শিকার বলে পিউ রিচার্সের এক জরিপে বলা হচ্ছে। বলা হচ্ছে এটি এক প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ সমস্যা নিরসনে শিক্ষক, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, কোম্পানি ও রাজনীতিবিদরা ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছেন বলে কিশোর-কিশোরীরা দাবি করেছে।

মার্কিন মুল্লুকে বেড়ে ওঠার সময় আপত্তিজনক উক্তি, আপত্তিকর ছবি বা বাজে মন্তব্য করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, মোবাইল ফোনে পোস্ট বা বার্তা ছড়িয়ে দেয়ার ফলে তীব্র এক মানসিক কষাঘাতে পড়তে হচ্ছে ছেলেমেয়েদের। কখনো কখনো আত্মহননে বাধ্য হচ্ছে কোনো ছেলে অথবা মেয়ে। জরিপে ৪২ ভাগ ছেলেমেয়ে বলছে তারা তাদের নামে আক্রমণাত্মক অভিব্যক্তি অনলাইনে বা সেলফোনের মাধ্যমে আক্রান্ত হয়ে থাকে। ৩২ ভাগ বলছে তাদের নামে ইন্টারনেটে এমন গুজব ছড়ানো হয়েছে যা রীতিমত অপমানজনক এবং তা তাদের মানসিক অশান্তিতে ফেলে দিয়ে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হতে বাধ্য করে। ২১ ভাগ বলছে অভিভাবকরাও তাদের নিরন্তর অনলাইনে জিজ্ঞেস করে, কোথায় আছি, কার সঙ্গে আছি, কি করছি ইত্যাদি। ১৬ ভাগ বলছে ধর্ষণ এমনকি জানে মেরে ফেলার হুমকিও তারা পেয়েছে। ৭ ভাগের দাবি তাদের ছবি বা কোনো তথ্য পোস্ট করার আগে কোনো অনুমতি নেওয়া হয়নি।

এসব ছেলেমেয়ের ৫৭ ভাগ অভিভাবক বলেছেন, তারা তাদের ছেলেমেয়েকে এধরনের হয়রানীর জন্যে খুবই চিন্তিত ও ক্ষুব্ধ। ৯০ ভাগ ছেলেমেয়ে মনে করে এধরনের অনলাইন হয়রানী তাদের পরবর্তী জীবনেও ক্ষতি বয়ে আনতে পারে। ৬৩ ভাগের মতে এটি একটি প্রধান সমস্যা। গত মার্চ থেকে ১০ এপ্রিল ৭৪৩ জন কিশোর-কিশোরী এবং ১ হাজার ৫৮ জন অনলাইন হয়রানীর জন্যে লিখিতভাবে অভিযোগ করেছেন। এক্ষেত্রে ছেলেমেয়েদের বয়স ছিল ১৩ থেকে ১৭ বছর।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত