প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতায় মাতলো রংপুর

ডেস্ক রিপোর্ট : গ্রামীণ জনপদের উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে ঐতিহ্যবাহী ভেলা বাইচ। অথচ এক সময় গ্রামের বড় বড় দিঘী, পুকুর এবং বিলে প্রায়ই ভেলা বাইচ খেলা হত। কলার গাছ দিয়ে তৈরি ভেলা ভাসিয়ে হৈ-হুল্লোড়ে মেতে উঠত গ্রামের কিশোর-যুবকরা।

দিন বদলের সঙ্গে সঙ্গে গ্রামের উন্নয়ন ও জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে কমে এসেছে পুকুর, দিঘী ও বিলের সংখ্যা। এখন গ্রামের দিঘী-পুকুরে আগের মতো দেখা যায় না ভেলায় ভেসে বেড়ানোর উচ্ছাস। প্রযুক্তি আমাদেরকে উন্নত করার সঙ্গে সঙ্গে কেড়ে নিচ্ছে আমাদের হাজার বছরের গ্রামীণ ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে।

প্রায় ২৫ বছর পর ঐতিহ্যবাহী সেই ভেলা বাইচ খেলা দেখলো রংপুরের মানুষ। শুক্রবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে কোলাহলমুক্ত সবুজ শ্যামলে ঘেরা রংপুরের মাহিগঞ্জ ডিমলা এলাকায় হয়ে গেল ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতা।

হাজার হাজার মানুষের উৎসাহ, উদ্দীপনা আর উচ্ছাসের ঢেউয়ে বিশাল পুকুরে ভেলা ভাসিয়ে আনন্দে মেতে উঠে যুব সমাজ। পুকুর পাড়ে সন্তানের হাত ধরে দাঁড়িয়ে থাকা অভিভাবকের অনেকেই ভেলা বাইচে খুঁজে পেয়েছেন নিজেদের ফেলে আসা কৈশোরের হারানো স্মৃতিকে।

ব্যতিক্রমী এই ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আমার চ্যানেল আই দর্শক ফোরাম। মাহিগঞ্জের ডিমলা কালি মন্দিরের পাশের বিশাল পুকুরের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে ১৮ জন প্রতিযোগি ভেলা বাইচ করে এগিয়ে আসার যুদ্ধে অংশ নেন। একটি করে ভেলায় বসে ২ জন প্রতিযোগি বৈঠা চালাতে চালাতে হাপিয়ে উঠলেও বিজয়ের লক্ষ্যে এগিয়ে থাকা মাইদুল, শফিকুল ও ফিরোজ জুটি যথাক্রমে প্রথম দ্বিতীয় এবং তৃতীয় হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে পুকুরের চারপাশে দাঁড়িয়ে থাকা শত শত শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণী, যুবক-যুবতী, বৃদ্ধ-বৃদ্ধারা হাত উঁচিয়ে আর হুররে চিৎকারে উৎসাহ দেন প্রতিযোগিদের। এমন দৃশ্য দেখতে পেয়ে ভীষণ খুশি তরুণ প্রজন্ম।

এদিকে ভেলা বাইচ দেখতে আসা সপ্তম শ্রেণী পড়ুয়া মুগ্ধ, সিহাব, মামুনের সঙ্গে কথা হয় বার্তা২৪.কমের। তারা জানান, টেলিভিশনের পর্দায় নৌকা বাইচ দেখেছি। কিন্তু ভেলা বাইচ কখনো দেখা হয়নি। ভীষণ ভালো লাগছে কলার গাছের তৈরি ভেলা বাইচ দেখে। ভেলা বাইচও একটা খেলা আমরা তা আগে জানতাম না।

পঁয়তাল্লিশ বছর বয়সী শিখা রানী বলেন, গ্রামীণ ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে এমন প্রয়াস সত্যি প্রশংসার। দীর্ঘ ২৫ থেকে ৩০ বছর পর এই ভেলা বাইচ দেখলাম। অথচ একটা সময় পুকুরে কতই না ভেলা ভাসিয়ে উল্লাস করেছি। শিখা রানীর মত অনেকেই খুশি হয়েছেন ঐতিহ্যবাহী ভেলা বাইচ দেখতে এসে।

এরআগে ‘কোটি প্রাণে মিশে, আমরা এখন ২০-এ’ এই স্লোগানে চ্যানেল আই’র বিশ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে ব্যতিক্রমী ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন রংপুর জেলা ও বিভাগীয় কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সদস্য সচিব সুশান্ত ভৌমিক সুবল।

রংপুর রিপোর্টার্স ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ ও বার্তা২৪.কমের স্টাফ রিপোর্টার ফরহাদুজ্জামান ফারুকের সঞ্চালনায় ও চ্যানেল আই’র রংপুর বিভাগীয় স্টাফ রিপোর্টার মেরিনা লাভলীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী আয়োজনে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট নাট্যজন রাম কৃষ্ণ স্বোমানী, নাট্য মির্নাতা ও অভিনেতা এম এ মজিদ, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হাশেম আলী, চন্ডিপুর হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক শামছুল আলম, আমতলা বিদ্যাপীঠের অধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম, সমাজকর্মী মাহবুব রহমান।
সূত্র : বার্তা২৪.কম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত