প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঐক্যের নামে নৈরাজ্যের চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা

হ্যাপি আক্তার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি গঠিত জাতীয় ঐক্য এখন রাজনৈতিক অঙ্গনে আলোচনার কেন্দ্রে। তবে ঐক্যজোটকে নিয়ে চিন্তিত নন আওয়ামী লীগের নেতারা। সময় টেলিভিশনের দেয়া সাক্ষাৎকারে নেতারা জানান, এই ঐক্য নিয়ে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে চিন্তিত নয়। তবে নিজেদের সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদারে নজর দলটির। এছাড়া ঐক্যের গতিবিধির প্রতিও নজরদারি রাখছে। অন্য দিকে ঐক্যের নামে নৈরাজ্যের সৃষ্টির চেষ্টা করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া কথা বলেন আওয়ামী লীগের নীতি-নির্ধারকরা।

ডক্টর কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় ঐক্যজোটকে সরকার প্রথমে স্বাগত জানালেও এর মধ্যে বিএনপি যুক্ত হওয়ায় ক্ষমতাসীন দল এই জোটের বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ তোলে।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, মুক্তিযুদ্ধইতো আমাদের মূল ভিত্তি। সেই ভিত্তির ওপরই বাংলাদেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ আছে। স্বাধীনতা বিরোধীরা এতদিন অনেক চেষ্টা করেছে। কাজেই তারা পারেনি এবং ভবিষতেও পারবে না।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ‘জন বিচ্ছিন্ন দলকে নিয়ে জোট করে সেই দলের ফায়দা কতটুকু হবে সেটা যারা করেছেন তারা বুঝবেন। তবে আওয়ামী লীগ এ ব্যাপারে চিন্তিত নয়।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য লে. কর্ণেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান বলেন, এই ধরনের জোট যদি নির্বাচনকে ঘিরে ষড়যন্ত্র করে, নির্বাচনকে প্রতিহত করার চেষ্টা করা হয় এবং সংবিধানবিরোধী হয় তাহলে সেটা সঠিক হবে না। সে ক্ষেত্রে সরকার এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।

এছাড়া আসন্ন নির্বাচনে নিবন্ধিত সব দল অংশ নেব বলে আশা প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত