প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রতারণা ও জিম্মি করে চাঁদা আদায়ের সময় শিক্ষিকাসহ কথিত সাংবাদিক আটক

রাসেল হোসেন, ধামরাই: নৌ-বাহীনিসার্জেন্ট মোঃ আনিছুজ্জামানকে প্রতারনার জালে ফাঁসিয়ে মটর সাইকেল, মোবাইল, আইডি কার্ডসহ নগদ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে ও জিম্মি করে দুই লক্ষ টাকা চাঁদা আদায়ের সময় ধামরাইয়ের প্রাথমিক স্কুল শিক্ষিকা কথিত সাংবাদিকসহ ৫ জন সক্রিয় প্রতারক চক্রকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটলিয়ন (র‌্যাব-৪)।

গত সোমবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে স্মৃতিশৌদের সামনে থেকে চাঁদা দুই লক্ষ টাকা নেওয়ার সময় তাদের গ্রেফতার করা হয়।
আটককৃতরা হলেন, টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর থানার বাউশাইদ গ্রামের শাজাহান মিয়ার মেয়ে কনা(৩০), মানিগঞ্জন জেলার দৌলতপুর থানার দৌলতপুর গ্রামের মহবুব রহমানের স্ত্রী আফরোজা আক্তার(৪৪), আফরোজা আক্তার ধামরাই উপজেলার ইসলামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা, কথিত সাংবাদিক রাজিব(৩৫), মানিকগঞ্জন জেলার শিবালয় থানার ডি-সাকরাইল গ্রামের মৃত আবু বক্করের ছেলে, ডাকা জেলার আশুলিয়া থানার আমবাগান গ্রামের আবিদ হেসেনের ছেলে ফয়জুল ইসলাম (৩৫), মানিকগঞ্জন জেলার শিবালয় থানার ডি-সাকরাইল গ্রামের আবু হানিফের ছেলে আলমগীর হোসেন(৩৩)। এরা সবাই সক্রিয় প্রতারক চক্রের সদস্য বলে জানিয়েছে র‌্যাব-৪।

গত (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টা ৪৫ মিনিটে সার্জেন্ট আনিছুজ্জামান বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় ৩২৩/৩৪২/৩৮৪/৩৮৫/৩৮৭/৫০৬/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন।

২৬ সেপ্টেম্বর বুধবার সকালে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরন করেন। বিজ্ঞ আদালত এ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এরা সবাই সাংবাদিকসহ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পরিচয় দিয়ে মানুষকে জিম্মি করে চাঁদা আদায় ও মারধর করত ।

বিশ্বস্থ্য সূত্রে জানা যায়, বিভিন্ন সময় সাধারন মানুষকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির বহু অভিযোগ আছে রাজীব ও আফরোজার বিরুদ্ধে। এরা সবাই প্রতারণার কাজ বহুদিন ধরে করছে বলে জানাযায়। নাম না প্রকাশের শর্তে একজন শিক্ষক বলেন বর্তমান শিক্ষা অফিসার কেও তারা ঘুষের টাকা নেওয়ার নাটক করে জিম্মি করে ৫০ হাজার চাঁদার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে জানান।

একদিনের রিমান্ড আনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আশুলিয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)রিজাউর হক দিপু।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ