প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

একের পর এক দুর্ঘটনার কবলে ইউএস বাংলা

মাসুদ আলম : একের পর এক দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে ইউএস বাংলা এয়ার লাইন্সের এয়ারক্রাফট । সর্বশেষ গতকাল বুধবার ঢাকা থেকে ১৭১ জন যাত্রী নিয়ে কক্সবাজারে যাওয়ার পথে চট্রগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ইউএস-বাংলার বিএস ১৪৩ ফ্লাইট। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

জানা গেছে, ঢাকা থেকে ১৭১ জন যাত্রী নিয়ে কক্সবাজারে যাওয়ার পথে চট্রগ্রামে শাহ আমানত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বিএস ১৪৩। ওই ফ্লাইটের সামনের নোজ হুইল কাজ না করায় জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হয় পাইলট। এ দুর্ঘটনা ঘটে দুপুর ১টার দিকে। ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষের দাবি টেকনিক্যাল কারণে জরুরি অবতরণ করতে হয়েছে।

উল্লেখ্য গত ১২ মার্চ নেপাল ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস বাংলার একটি এয়ারক্রাফট ৭১ জন যাত্রী নিয়ে বিধ্বস্ত হয়। এতে ৫১ জন যাত্রী মারা যায়। এর মধ্যে বাংলাদেশি ছিলেন ২৬ জন। ওই ঘটনার পর গত ১৯ জুলাই রাতে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি এয়ারক্রাফট জরুরি অবতরণ করে। চট্রগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দর থেকে আসা ড্যাশ ৮ কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফটার পেছনের দিকের চাকা ফেটে এয়ারক্রাফট অবতরণ করেছে। এতেও হতাহতের কোনও ঘটনা ঘটেনি। গত ২৪ মার্চ শনিবার সকালে মালয়েশিয়াগামী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের আরওএকটি ফ্লাইট ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে। আকাশে উড়াল দেয়ার ১৫ মিনিট পরই ওই ফ্লাইটটি অবতরণ করে। টেকনিক্যাল সমস্যার জন্য ক্যাপ্টেন শাহজালালে জরুরি অবতরণ করান ফ্লাইটটিকে। এছাড়া বিগত বছরগুলোতে দুর্ঘটনা বা জরুরি অবতরণের ঘটনাও ঘটেছে।

ইউএস বাংলার মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) কামরুল ইসলাম বলেন, টেকনিক্যাল কারণে জরুরি ওসব অবতরণ করা হয়। যান্ত্রিক ক্রটি যে কোনো সময় হতে পারে। এতে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। গতকালের অবতরণ ছিল টেকনিক্যাল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত