প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

জনসভায় কর্মসূচি ঘোষণা করবে বিএনপি

শিহাবুল ইসলাম : বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আগামী শনিবার সোহরাওয়ার্দীর উদ্দ্যানের জনসভায় ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা ও কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বুধবার সকালে এক যৌথ সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, সোহরাওয়ার্দীর উদ্দ্যানে আমরা জনসভা করবো, সে ব্যাপারে আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি আজকে।২৭ তারিখে জনসভা করতে চেয়েছিলাম, এজন্য গত বৃহস্পতিবার পুলিশ কমিশনারের কাছে অনুমতি চেয়ে চিঠি দিয়েছিলাম। তারাই বলেছিলেন ২৭ তারিখে করা ঠিক হবে না, ২৯ তারিখ শনিবার সভা করেন সোহরাওয়ার্দীর উদ্দ্যানে।এখন বলা হচ্ছে, ২৯ তারিখে নাকি আওয়ামী লীগের একটি সভা আছে মহানগর নাট্যমঞ্চে। আমাদের জনসভা থেকে সেটা অনেক দূরে, তার সাথে এর কি সম্পর্ক বুঝতে পারছি না।

নাসিম সাহেব বলেছেন রাজপথে, গলিতে যেখানে (বিএনপি নেতাদের) পাবে আটকে দাও, তারা যেনো বেড়িয়ে আসতে না পারে। আর নানক সাহেব বলেছেন হাত-পা ভেঙ্গে দাও। এগুলো হচ্ছে তাদের গণতন্ত্রের ভাষা। জনগণ বিবেচনা করবে এই সংঘাত, সহিংসতা কারা শুরু করে, ২০০৬ সালের ২৭ অক্টবর কারা লগি বৈঠা দিয়ে কারা ২৭ জন তরুণকে হত্যা করেছিল? তাদের বড় বড় নেতারা যেভাবে হুমকি দিচ্ছেন, প্রধানমন্ত্রী বিদেশে গেলে সুন্দর সুন্দর কথা বলেন আর দেশে এলে উনিও হুমকি শুরু করে দেন। এটা তাদের চরিত্র। হুমকি-ধামকি দিয়েই রাজনীতি ও রাষ্ট পরিচালনা করে। এটা আমরা ১৯৭২ সাল থেকে দেখে আসছি বলেন ফখরুল।

সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেছেন, ‘বিএনপি নাকি এখন আমাদের নেত্রী বেগন খালেদা জিয়ার ভ্যানিটিব্যাগে, আর আন্দোলন নাকি কারাগারে।’ ফখরুল এর জবাবে বলেন, গোটা বাংলাদেশ তো এখন একটা কারাগারে পরিণত হয়েছে। সেই কারাগার ভেঙে ফেলতে এ দেশে আন্দোলন হবে, জনগন অবশ্যই আন্দোলনের মধ্য দিয়ে এই দেশ ও গণতন্ত্রকে মুক্ত করবে।

সারা দেশে ৩ লাখেরও বেশি নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে অভিযোগ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, সারা দেশে গায়েবি মামলার উৎস চলছে। কে কতো গুলো দিতে পারে সে উৎস চলছে। বাংলাদেশ বিএনপির এমন কোনো ইউনিট নাই যেখানে সভাপতি থেকে শুরু করে সদস্য পর্যন্ত মামলায় আসামী করা হয় নাই। সাড়ে ৪ হাজার মামলা দেওয়া হয়েছে, আর নাম দেওয়া হয়েছে ৩ লাখেরও বেশি। আর অজ্ঞ্যাত এর বাইরে। এ থেকে স্পস্ট নির্বাচন নিয়ে সরকার যে সকল কথা বলছে সেগুলো সবই জনগনের সঙ্গে প্রতারণা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ঢাকা বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, এছাড়া বিএনপির অংগ সহযোগী সংগঠনের নেতারা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত