প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ওমরাহ হজ পালনের নামে সৌদিতে মানব পাচার
দায়ী এজেন্সিগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ

আসাদুজ্জামান সম্রাট : নীতিমালা লংঘন করে ওমরাহ হজ পালনে সৌদি আরবে হাজী পাঠাচ্ছে হজ এজেন্সিগুলো। ওমরাহ ভিসায় যাওয়া ওই সকল হাজীদের অনেকেই দেশে ফিরছে না। কিন্তু মানব পাচারের এই প্রতিক্রিয়ায় কোন নিয়ন্ত্রণ নেই ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের। এই অবস্থায় নীতিমালা লংঘনকারী হজ এজেন্সিগুলোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এই সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি বজলুল হক হারুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লা, এ কে এম এ আউয়াল (সাইদুর রহমান), সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারি, মো. মকবুল হোসেন ও মোহাম্মদ আমির হোসেন এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি বজলুল হক হারুন এক প্রেস ব্রিফিং-এ বলেন, অতীতের যে কোন সময়ের থেকে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে এবছরের হজ পালন সমাপ্ত হয়েছে। যেখানে কোন ধরণের ক্রুটি ছিলো না। কিছু জটিলতা হলেও তা তাৎক্ষণিক ভাবে সমাধান করা গেছে।আগামীতে আরো বেশি সুষ্ঠু ভাবে এই আয়োজন সম্পন্ন করা যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হজ নিয়ে প্রতারণা ও অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে মন্ত্রণালয় সব সময়ই কঠোর অবস্থানে ছিলো। এখনো আছে। বিশেষ করে নীতিমালা লংঘন করে ওমরাহ ভিসায় সৌদি আরবে হাজী পাঠানোর বিষয়টি সংসদীয় কমিটির দৃষ্টিতে এসেছে। ওই ঘটনার জড়িত এজেন্সিগুলোকে ইতোমধ্যে মন্ত্রণালয় শোকজ করেছে।শোকজের জবাব পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি আরো বলেন, সাধারণ হজে মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ থাকলেও ওমরাহ ভিসা দেওয়ার ক্ষেত্রে দূতাবাস প্রধান ভূমিকা পালন করে। এক্ষেত্রে মন্ত্রণালয়ের বিশেষ কিছু করণীয় নেই। বিষয়টি নিয়ে দূতাবাসের সঙ্গে আলোচনার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সংসদ সচিবালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বৈঠকে ২০১৮ সালের হজে সরকারি ও বেসরকারি সকল হাজির সার্বিক ব্যবস্থাপনা অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় উত্তমভাবে সম্পাদিত হওয়ায় বাংলাদেশ এবং সৌদি আরবের সকল মহল থেকে ধন্যবাদ ও প্রশংসা পাওয়া গেছে বলে জানানো হয়। এবিষয়ে আলোচনা শেষে অতীত অভিজ্ঞতার আলোকে আগামীতে হজের পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত