প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপি খালেদা-তারেককে মাইনাস করছে : হাছান মাহমুদ

সমীরণ রায়: আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি ড. কামাল হোসেন ও বি. চৌধুরীরকে ভাড়াটিয়া খেলোয়ার হিসেবে নিয়ে খালেদা জিয়া-তারেক রহমানকে মাইনাস করছে।

আজ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে সংগঠনটি।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক শাহারা বেগম কবরীর সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ-সভাপতি মোবারক আলী সিকদার, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকট বলরাম পোদ্দার, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা, চিত্র নায়িকা অরুণা বিশ্বাস, নতুন, সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রনি, সমীরণ রায় প্রমুখ।

এ সভায় হাছান মাহমুদ বলেন, খেলায় যেমন খেলোয়ার ভাড়াটিয়া হিসেব ভাড়ায় খাটে। তেমনি ড. কামাল হোসেন ও বি. চৌধুরীকে ভাড়াটিয়া হিসেব বিএনপি নিয়েছে। প্রকৃতপক্ষে বিএনপি নেতারা খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে মাইনাস করেছেন জাতীয় ঐক্যের মধ্য দিয়ে। তবে বিএনপির অন্য নেতারা বুঝছেন কি না তা জানিনা। এটা সু-চতুরভাবেই বিএনপি নেতারা করেছেন।

বিএনপি ২৭ সেপ্টেম্বরের সমাবেশ ২৯ সেপ্টেম্বর ঘোষণাকে ঝগড়া বাধাতে চাওয়া উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমাবেশ পূর্ব নির্ধারিত। কিন্তু বিএনপি ওইদিন সমাবেশের ঘোষণা দিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যাওয়ার পায় তারা করছে। তবে দেশের মানুষ আর ২০১৩, ১৪ ও ১৫ সালের মতো সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করতে দেবে না। দেশের মানুষকে সঙ্গে নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অতন্দ্র প্রহরীর মতো পাহাড়া দেবে। সমাবেশের নামে কোনো গন্ডগোল করলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তা প্রতিহত করা হবে।

জাতীয় ঐক্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, দেশকে নিয়ে আবারও ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। জাতীয় ঐক্যের নামে কিছু মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। এই ঐক্য স্বাধীনতা বিরোধী, অসাম্প্রদায়িক শক্তি ও ১/১১’র ষড়যন্ত্রকারীদের।

জাতীয় ঐক্যের নামে ১/১১’র কুশীলবরা গাটছাড়া বেধেছেন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, জাতীয় ঐক্যের নামে এরা ষড়যন্ত্র করছে। কিভাবে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যাওয়া যায় তা তারা জানে। কিন্তু নির্বাচনের মাধ্যমে এই অশুভ শক্তি ক্ষমতায় যেতে পারবে না। তাই কিভাবে আবার অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতায় যাওয়া যায়, সেই চেষ্টা করছে। এই জাতীয় ঐক্য বিএনপির বেচে থাকার শেষ কোরামিন ইনজেকশন। ডুবন্ত বিএনপির অস্তিত্ব বিলিন প্রায়। বিএনপিকে বাচিয়ে রাখতেই মূলত এই ঐক্য।

বিএনপি ২৯ সেপ্টেম্বর সমাবেশের নামে কোনো ষড়যন্ত্র করলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিহত করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশে কোনো বিশৃঙ্খলা করা হলে তার পরিনতি হবে ভয়াবহ। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে গণধোলাই দেওয়া হবে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীকে ঐকব্যবদ্ধভাবে মাঠে থাকতে হবে ষড়যন্ত্র মোকাবেলায়।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত