প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যারা মুক্তিযুদ্ধকে অস্বীকার করে, তাদের বাদ দিয়ে ঐক্য কামনা করি : বি. চৌধুরী

রফিক আহমেদ : যুক্তফ্রন্ট চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, আমি বিশ্বাস করি, আমাদের ঐক্যের ভিত্তি ভারসাম্যের রাজনীতি। যারা মুক্তিযুদ্ধের মানচিত্রকে এখনও অস্বীকার করে, তাদের বাদ দিয়ে বাংলাদেশের সবার সঙ্গে আমরা ঐক্য কামনা করি।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটায় রাজধানীর বারিধারার নিজ বাসভবনে যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

বি. চৌধুরী বলেন, দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছি। আর বর্তমান যে অবস্থা তা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমাদের ভবিষ্যত প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বিএনপির সঙ্গে আমরা অনেক কাছাকাছি এসেছি। তারই অংশ হিসেবে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বৈঠকে তার প্রতিনিধি পাঠিয়েছেন। তিনি বৈঠকে জানিয়েছেন, ২৯ সেপ্টেম্বর বিএনপির সমাবেশ আছে। সেই সমাবেশে ঐক্য প্রক্রিয়ায় যোগদানের বিষয়ে দিক নির্দেশনা থাকবে। তাই লিয়াঁজো কমিটি গঠন যেন পিছিয়ে দেওয়া হয়। আশা করি, ভবিষ্যতে আমরা আরও কাছাকাছি হতে পারবো।

যুক্তফ্রন্ট চেয়ারম্যান আরো বলেন, এই সরকার স্বেচ্ছাচারী সরকার। জনগণ আর স্বেচ্ছাচারী সরকার চায় না। ভবিষ্যতেও যাতে আর কোন স্বেচ্ছাচারী সরকার ক্ষমতায় আসতে না পারে এজন্য জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ভারসাম্যমূলক সরকার চায়।

এসময় সাংবাদিকরা জানতে চান, বিএনপির সমাবেশে বি. চৌধুরী যাবেন কী না? জবাবে বি চৌধুরী বলেন, আমাকে তো এখনও দাওয়াতই দেওয়া হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস- চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, বি চৌধুরী স্যার সব বলে দিয়েছেন। ২৯ সেপ্টেম্বর আমাদের সমাবেশ আছে। ওই সমাবেশ থেকে আমাদের পরিকল্পনা জনগণের কাছে তুলে ধরব।

তিনি বলেন, গত ২২ সেপ্টেম্বর সমাবেশের মধ্য দিয়ে যে ঐক্য তৈরি হয়েছে, আমরা ঐক্য প্রক্রিয়া সফল হয়, সে চেষ্টা করব।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, বর্তমান স্বৈরাচারি সরকারের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া নিয়ে ব্যাপক আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ময়মনসিংহে সমাবেশের মাধ্যমে আমরা ঐক্য প্রক্রিয়ার গণসংযোগ শুরু করব।

বিকল্প ধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী বলেন, বিকল্প ধারার পক্ষ থেকে আমরা রেজুলেশন নিয়ে জাতীয় নেতৃবৃন্দকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছি, স্বাধীনতাবিরোধী কোন দল বা ব্যক্তিকে শরিক রাখলে বিএনপিকে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ায় সম্পৃক্ত করা যাবে না।

বৈঠকে বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমিন, বিএনপির পক্ষে সাবেক প্রতিমন্ত্রী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, জেএসডির, জেএসডির সহসভাপতি তানিয়া রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পদক ব্যারিষ্টার ওমর ফারুক, গণস্বাস্থ্যের ট্রাষ্ট্রি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গণফোরামের পক্ষে আ. উ. ম শফিক উল্লাহ ও জগলুল হায়দার আফ্রিক ও জেএসডির শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহবায়ক ড. কামাল হোসেন অসুস্থতাজনিত কারণে সভায় যোগ দিতে পারেননি বলে সংবাদ বিফ্রিং-এ জানানো হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত