প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আইনের মারপ্যাঁচে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্বহীন করার চেষ্টা করা হয়েছে: নূর খান

সাজিয়া আক্তার : মানবাধিকারকর্মী নূর খান বলেছেন, বল প্রয়োগ, নিপীড়ন, হত্যা ধর্ষণসহ নানা নির্যাতনের  মধ্যদিয়ে  দেশ থেকে রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করে আইনি মারপ্যাঁচে তাদের নাগরিকত্বহীন করার চেষ্টা করা হয়েছে।

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ২৪ কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেছেন, বাংলাদেশ মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে। রোহিঙ্গারা যে মিয়ানমারের নাগরিক এতে কোনো সন্দেহ নেই। এ মানুষগুলো প্রতিনিধি হিসেবে সেখানের পার্লামেন্টে ছিলেন, এরাই রাজনৈতিক দলে প্রতিনিধিত্ব করতেন। কিন্তু বিভিন্ন আইনের মারপ্যাঁচে দেশ থেকে তাদের বিতাড়িত করা হয়েছে।

‘জটিল প্রক্রিয়ার মধ্যে না গিয়ে স্বাভাবিকভাবে এই নাগরিকত্ব নিশ্চিত করা সম্ভব। মিয়ানমার যে ভেরিফিকেশনের কথা বলছে সেটি জটিল প্রক্রিয়া। আর এই প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব প্রমাণ করা সম্ভব না।’

নূর খান বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর যে অমানবিক অত্যাচার করা হয়েছে তা ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর হাতে অত্যাচারিত হয়ে বাংলাদেশের মানুষ যেভাবে ভারতের দিকে ধাবিত হয়েছিল তার মতোই অনেকটা। রোহিঙ্গারা যেভাবে দেশ ছাড়া হয়েছে তাদের পক্ষে ওই পরিস্থিতিতে জমির দলিল, নাগরিকত্বের কাজগপত্র এগুলো নিয়ে আসা সম্ভব নয় সেটি বিবেচনা করতে হবে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দলিল জাতীয় সকল প্রমাণ নিয়ে নেওয়া হয়েছে। দলিলগুলো নিয়ে তাদের অন্য কাগজ প্রদান করা হয়েছে। রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন আইনি মারপ্যাঁচে নাগরিকত্বহীন করার চেষ্টা করা হয়েছে। বল প্রয়োগ, নির্যাতন, নিপীড়ন, হত্যা ধর্ষণসহ ইত্যাদির মধ্যদিয়ে দেশ থেকে বিতাড়িত করে তাদের নাগরিকত্বহীন করার চেষ্টা করা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত