প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বুধবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জয় চান মাশরাফিরা

এল আর বাদল : আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সাফল্য বলতে মাত্র চারটি জয়। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে ৩৫ স্বাক্ষাতে এই জয়কে খুব ভালো পারফরমেন্স বলা যায় না, তার উপর এশিয়া কাপে দু’বার স্বাক্ষাত হলেও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কোনো জয় নেই বাংলাদেশের।

তবে ২০১২ সালে মিরপুর মাঠে এশিয়া কাপের ফাইনালে জয়ের দ্বারপ্রান্তে গিয়ে ২ রানে হোঁচট খেয়েছিল সাকিববাহিনী। সেই স্মৃতি ধারণ করে বুধবারের স্বাক্ষাতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জয়ের প্রত্যাশা বাংলাদেশ দলের প্রতিটি সদস্যের।

এবার এশিয়া কাপের চতুর্দশ আসরে বাংলাদেশ – পাকিস্তান মুখোমুখি। কে হারবে আর কে জিতবে তা দেখার অপেক্ষায় বাংলাদেশের লক্ষ কোটি ক্রীড়ামোদি। বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৫টায় আরব আমিরাতে আবুধাবি স্টেডিয়ামে সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মোকাবিলা করবে।

উভয় দলের জন্য সমীকরণ কিন্তু একটাই, যারা জিতবে তারাই ফাইনালে ভারতের প্রতিপক্ষ। পাকিস্তানের অধিনায়ক গতকাল সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বললেও টাইগার দলপতি মাশরাফি কিন্তু সাংবাদিকদের এড়িয়ে গেলেন। ক্রিকেটের ওয়েবসাইট ‘ক্রিকইনফো’ জানিয়েছে, সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফির আসার কথা থাকলেও উপস্থিত হলেন টাইগারদের গুরু (কোচ) স্টিভ রোডস।
মরুর দেশে এই প্রথম খেলছে বাংলাদেশ দল। কঠিন চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশের জন্য। সেই চ্যালেঞ্জের জন্য দল কতটা প্রস্তুত সেটাই জানালেন টাইগার কোচ।

তিনি বললেন, এই ম্যাচটা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। পাকিস্তান নিজেদের দিনে যে কোনো কিছু করে ফেলতে পারে। ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তারা দুর্দান্ত খেলেছে। যদিও সেই মানে তারা এখানে খেলতে পারছে না। তবে পাকিস্তানকে নিয়ে কোনো কিছুই বল যায় না। তারা খুবই শক্তিশালী দল। নির্দিষ্ট দিনে যে কোনো কিছু করে ফেলতে পারে। কোচ বলেন, আমার মনে হয় পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে খেলা অসম্ভব কিছু নয়। দলের ব্যাটিং লাইন এখনও চিন্তার কারণ। টপ অর্ডারের ধারাবাহিকতা নেই। সবচেয়ে বড় চিন্তা ওপেনিংয়ে।

এদিকে পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বলছেন, এশিয়া কাপে আমাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সুখকর দিন নেই। আমরা তাদের বিরুদ্ধে দু’বার খেলে দু’বারই জিতেছি। ইনশাল্লাহ আগামীকালও (বুধবার) জিতবো। তবে সরফরাজ বাংলাদেশকে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ বলে মন্তব্য করেছেন। মাশরাফির নেতৃত্বেরও প্রশংসা করেছেন তিনি। সরফরাজ বলেন, যে কোনো সময় মাশরাফিরা ছোবল মারতে পারেন। গত ম্যাচে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে প্রায় হারানো ম্যাচ ছোবল মেরেই জিতেছে। সবকিছু মাথায় রেখেই আমরা বাংলাদেশের মোকাবিলা করবো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত