প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন

বিল্লাল হোসেন, কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের কালীগঞ্জে ঐতিহাসিক আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজ সেবক গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আত্মদানকারী জাতীয় বীর শহীদ ময়েজউদ্দিন আহমেদের হত্যাকারী আজম খান চলতি মাসের ২২ তারিখে প্রথমে স্থানীয় মাহেন্দ্র ও সিএনজি চালক এবং পরে জাতীয় পার্টির অন্য গ্রুপের কাছে গণধোলায়ের শিকার হয়। আর সেই বিষয়টি কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও নেতৃবৃন্দের কথা উল্লেখ করে গত ২২ ও ২৩ দেশের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হয়।

সেই সংবাদের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার দেওপাড়া শহীদ ময়েজউদ্দিন ফেরীঘাটে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ। সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে আজম খানের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগ তুলে উপজেলা আওয়ামী লীগে সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গনি ভুইয়া স্বাক্ষরিত লিখিত বক্তব্য পেশ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে মিডিয়ায় প্রকাশিত সংবাদটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, মিথ্যা ও বানোয়াট দাবি করে এর প্রতিবাদ জানিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি পরিমল চন্দ্র ঘোষ সাংবাদিকদের বলেন, এটা স্থানীয় আওয়ামী লীগের উন্নয়নের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে একটি চক্র। আমরা আওয়ামী লীগ ও নেতৃবৃন্দের নামে মিথ্যাচারের জন্য খুনি আজম ও তার দোষরদের বিচার ও গ্রেফতার দাবি করছি।

এ সময় সাংবাদিকদের মাধ্যমে দেশবাসীর কাছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের অবস্থান তুলে ধরেন কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ। তিনি অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগের স্থানীয় উন্নয়নে ঈর্ষানিত হয়ে একটি কুচক্রি মহল সাংবাদিকদের ভুল, মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে দলের ভাবমুর্তি ও দলীয় নেতৃবর্গকে বিভ্রান্ত করছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা শরীফুল ইসলাম তোরণ, মাজেদুল ইসলাম সেলিম, শফিউল কাদের নান্নু, আবুবকর সিদ্দিকী, দেলোয়ার হোসেন, আহমেদুল কবির, হাসান শরীফ খান ববি, আলমগীর হোসেন, মুর্শিদ কুলি, মাহবুবুর রহমান ফারুক মাস্টার, কামরুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম সিজু, মনিরুল আলম, যুবলীগ নেতা, কাজী হারুন-অর-রশিদ টিপু, বাদল হোসেন, রেজাউর রহমান আশরাফী খোকন, ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেন, আলী-আল-রাফু অমিত, ওয়াহিদ হাসানসহ উপজেলা, পৌর, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা আজম খানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত