প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

মানব পাচার নিয়ে জাতিসংঘে বাংলাদেশের উদ্বেগ

তরিকুল ইসলাম : নিউ ইয়র্কে চলমান জাতিসংঘ অধিবেশনের সাইট ইভেন্টে মানব পাচার প্রতিরোধ সংক্রান্ত এক বৈঠকে মানব পাচার নিয়ে জাতিসংঘে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ।

সোমবার নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টায় ঐ বৈঠকে উদ্বেগ প্রকাশ করে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বলেছেন, মানব পাচারের বিরুদ্ধে আন্তরিকভাবে একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। তবুও মানব পাচারের ঝুঁকি বেড়েই চলেছে।

সহিংসতা এবং সংঘর্ষমূলক কর্মকাণ্ড সন্ত্রাসী দলগুলোকে মানব পাচারের পরিবেশ সৃষ্টিতে সুযোগ করে দিচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

যুক্তরাষ্ট্রের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী জন জে সুলিভান এই বৈঠকের আয়োজন করেন। বৈঠক থেকে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা এবং নিউজিল্যান্ডের পক্ষে বিশ্বব্যাপি মানব পাচার প্রতিরোধ করতে ‘প্রিন্সিপালস টু গভর্নমেন্ট অ্যাকশন টু কমব্যাট হিউম্যান ট্রাফিকিং ইন গ্লোবাল সাপ্লাই চেইন’ শীর্ষক একটি রোড ম্যাপের ঘোষণা করা হয়।

যাতে মানব পাচার প্রতিরোধ এবং দাসত্ব প্রথা বিলুপ্ত করতে রাষ্ট্রগুলো সঠিক পন্থায় উদ্যোগ নিয়ে বাস্তবায়ন করতে পারে। মানব পাচার প্রতিরোধ করতে ওই বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে আরও ৭৫ মিলিয়ন ডলার সহায়তার ঘোষণা দেওয়া হয়।

রোড ম্যাপের ঘোষণায় যুক্তরাষ্ট্রের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী জন জে সুলিভান বলেন, মানব পাচার বন্ধ করতে হলে সবগুলো রাষ্ট্রকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। সবাইকে একসঙ্গে বসে সঠিক পন্থা বের করতে হবে। দাসত্ব প্রথা এবং মানব পাচারের বিরুদ্ধে সকলকে সোচ্চার হতে হবে।

মানব পাচার প্রতিরোধে আমাদেরকে ৪টি বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দিতে হবে। সরকারি কাজ-কর্মের অনুশীলনে মানব পাচার প্রতিরোধ কর্মকাণ্ডকে অর্ন্তভুক্ত করতে হবে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠাগুলোকে মানব পাচারের বিরুদ্ধে কাজ করার উৎসাহ যোগাতে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে কাজ করতে হবে। রাষ্ট্রকে এমন নীতি প্রনয়ণ করতে হবে যেখানে কর্মীদের অধিকার সুরক্ষিত থাকবে। মানব পাচার প্রতিরোধে রাষ্ট্রকে আন্তরিক হতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত