প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইসির নির্বাচনী সফর শুরু

ডেস্ক রিপোর্ট: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক-প্রস্তুতির অংশ হিসেবে দেশের বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনী সফর শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা দিনাজপুর ও বগুড়ায় গেছেন। পর্যায়ক্রমে অন্য নির্বাচন কমিশনাররাও নির্বাচনী সফরে বের হবেন। এরই মধ্যে ইসি সচিব ঢাকার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন থানা নির্বাচন কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠক করেছেন। আগামী শনিবার তিনি চট্টগ্রাম অঞ্চলে নির্বাচনী সফরে যাবেন।

ইসি সচিবালয়ের কর্মকর্তারা জানান, জাতীয় নির্বাচনের ৮০ শতাংশ প্রস্তুতি প্রায় শেষ। বাকি কাজের বড় একটি অংশ শেষ করার দায়িত্ব স্থানীয় প্রশাসনের। এ জন্য কমিশন বিভিন্ন অঞ্চলে নির্বাচনী সফর শুরু করেছে। এই সফরের লক্ষ্য স্থানীয় প্রশাসনের প্রস্তুতি সম্পর্কে অবগত হওয়া। এ ছাড়া আজ মঙ্গলবার ভোটার তালিকার সিডি জেলা/উপজেলায় পাঠানো হবে। আগামী ১০ অক্টোবর থেকে ভোটার তালিকার সিডির মুদ্রণ শুরু হবে।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘নির্বাচনের প্রাক-প্রস্তুতির অংশ হিসেবে সিইসি দিনাজপুর ও বগুড়ায় গেছেন। বিভিন্ন অঞ্চলের স্থানীয় নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন তিনি। এরই মধ্যে ইসি সচিবালয়ের বিভিন্ন অধিশাখা ও কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য যা যা করার তার সবই করা হবে।’

আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারির মধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সংবিধান অনুযায়ী দশম সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যে একাদশ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ২০১৪ সালের ২৯ জানুয়ারি দশম সংসদের প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সে হিসাবে আগামী বছরের ২৮ জানুয়ারির পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ৩০ অক্টোবর থেকে জাতীয় নির্বাচনের কাউন্ট-ডাউন শুরু হবে। ইসি সচিবের মতে, এরপর যেকোনো সময় তফসিল ঘোষণা করতে পারে নির্বাচন কমিশন। সম্প্রতি সিইসি জানিয়েছেন, ডিসেম্বরের শেষ অথবা জানুয়ারিতে ভোট গ্রহণের পরিকল্পনা রয়েছে।

সিইসি নির্বাচনী সফর বিষয়ে গত ১৯ সেপ্টেম্বর ইসির অফিস আদেশে বলা হয়েছে, প্রধান নির্বাচন কমিশনার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনসংক্রান্ত সভায় যোগ দেওয়ার জন্য ২৪ সেপ্টেম্বর দিনাজপুর ও বগুড়া জেলা সফর করবেন। গতকাল সোমবার সকালে ঢাকার নিজ বাসভবন থেকে দিনাজপুরের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন সিইসি। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, দিনাজপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাসহ জেলার সব উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার সঙ্গে মতবিনিময় করবেন তিনি। বিকেল ৩টায় জেলা প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গেও মতবিনিময় করবেন। একইভাবে আগামী বৃহস্পতিবার বগুড়া জেলার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন সিইসি। ঢাকায় ফিরবেন শুক্রবার।

ইসি সচিবালয়ের তথ্য অনুসারে, আগামী সপ্তাহে বাকি চারজন নির্বাচন কমিশনারকে বিভিন্ন অঞ্চল সফরের জন্য প্রস্তাবনা দেওয়া হবে। পর্যায়ক্রমে নির্বাচন কমিশনাররাও বিভিন্ন অঞ্চলে বের হবেন। ঢাকা অঞ্চলের নির্বাচনী কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর গত রবিবার সচিবালয়ের সংস্থাপন-১, সংস্থাপন-২, হিসাব শাখা, বাজেট ও ব্যয় নিয়ন্ত্রণ শাখা, জনবল-১, জনবল-২, সাধারণ সেবা শাখা-১, সাধারণ সেবা শাখা-২, সাধারণ সেবা শাখা-৩, প্রশিক্ষণ ও সক্ষমতা উন্নয়ন শাখা, নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, নির্বাচনী সহায়তা শাখা-১, নির্বাচনী সহায়তা শাখা-২, বাজেট ও অর্থ শাখা, ক্রয় ও মুদ্রণ শাখা, নির্বাচনী ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয় শাখা-১, নির্বাচনী ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয় শাখা-২ এবং নির্বাচন প্রশাসন শাখার সঙ্গে বৈঠক করেন ইসি সচিব। গতকাল জনসংযোগ শাখা, আইন শাখা-১, আইন শাখা-২, আইন শাখা-৩, আইসিটি অনুবিভাগ এবং জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের সঙ্গে বৈঠক করেন। এই বৈঠক মূলত প্রাক-নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে কোন শাখার কী দায়িত্ব সেটির চেকলিস্ট প্রস্তুত করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।

আগামী শনিবার ইসি সচিব চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা/থানা নির্বাচন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে আসন্ন নির্বাচন উপলক্ষে বিভিন্ন ধরনের দিকনির্দেশনা দেবেন। সূত্র: কালের কন্ঠ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত