প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের ৬ ওটির মধ্যে ৪টিই বন্ধ

ডেস্ক রিপোর্ট: জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের ছয়টি ওটির (অপরারেশন থিয়েটার) মধ্যে চারটিই বন্ধ রয়েছে। এক সঙ্গে চারটি ওটি বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছেন রোগীরা।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে বর্ধিতাংশের সংস্কার কাজ চলার কারণে হাসপাতালের অপারেশন খিয়েটারের (ওটির) সেবা দেয়া সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। এইজন্য হাসপাতালে নতুন কোনও রোগী ভর্তি নেয়া হচ্ছে না। শুধুমাত্র ইমারজেন্সি রোগীদের ভর্তি নেয়া হচ্ছে। আর যারা আগে থেকেই হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন, তাদের মধ্যে যাদের অবস্থা বেশি খারাপ তাদের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। এতে ক্ষোভ জানিয়েছে রোগীর স্বজনরা।

দিনাজপুর থেকে আসা রাসেল নামের রোগীর এক স্বজন জানান, তার বাবাকে দিনাজপুর সদর হাসপাতাল থেকে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতলে ওপেনহার্ট সার্জারির জন্য পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এক মাস ধরে ভর্তি থেকেও অপারেশনের নির্ধারিত তারিখ পাননি। গত দুইদিন আগে ডাক্তার বলে দিয়েছেন অপারেশনের তারিখ পেতে দেরি হবে। তাই এখন টাকার সমস্যা থাকলেও জীবন বাঁচানোর জন্য বাধ্য হয়েই প্রাইভেট হাসপাতালে যেতে হচ্ছে।

চারটি ওটি এক সঙ্গে বন্ধ থাকায় তার মতো অনেক রোগীকেই বিপাকে পড়তে হচ্ছে।জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, সংস্কার কাজের জন্য হাসপাতালে ছয়টির মধ্যে চারটি বন্ধ রয়েছে। চারটির সংস্কার কাজ চলছে।  এর শুধু ভাসকুলার সার্জারি বিভাগের সার্জারি ওটি চালু রয়েছে। এতে রক্তনালীর কিছু অস্ত্রোপচার করা হচ্ছে। ফলে ওপেন হার্ট সার্জারিসহ অন্য অস্ত্রোপচার বন্ধ রয়েছে। ইমারজেন্সি ওটি খোলা রয়েছে, সেখানে ইমারজেন্সি চিকিৎসা চলছে।

দুটি আইসিইউ রুমের মধ্যে একটির সংস্কার কাজ চলছে। জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের মুখপাত্র আরটিভি অনলাইনকে জানান, ১৯ সেপ্টম্বর থেকে এই সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। সংস্কার কাজ শেষ হতে ৩০ দিন সময় লাগবে। ওটির পাশ দিয়ে ইট, বালু, রড় এবং সিমেন্ট নিয়ে যাওয়ার কারণে সেখানে জীবাণু সংক্রমণের শঙ্কা রয়েছে। কাজ শেষ হলে আবারও, সব কটি ওটি চালু হবে।তিনি জানান, হৃদরোগ হাসপাতালে প্রাথমিকভাবে জীবাণু সংক্রমণ হতে পারে এমন ৪২টি স্থান শনাক্ত করা হয়েছে। এতে দেখা গেছে, সম্পূর্ণ ওটি প্রথমে ফিউমিগেশন (গ্যাস দিয়ে জীবাণুমুক্ত) করতে হবে। স্টেবিলাইজার মেশিন পরিবর্তন করতে হবে। সিঙ্ক পুনঃস্থাপনসহ সংশ্লিষ্টদের পোশাকও জীবাণুমুক্ত করা দরকার। সূত্র: আরটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত